একজন মানুষ একাকী

শ্যামল চন্দ্র নাথ

 

একজন মানুষ একাকী

আলোতে একাকী অন্ধকারে একাকী বুকফাটা গলায় একাকী

রক্ত গড়িয়ে পড়ছে – মানুষের রক্ত তাই যাবো যাবো ভাবছি যাওয়া হলো না জীবন-যমুনার এপার-ওপার!

যেন ছিটকে পড়ে মুখের জ্যোতি, একজন মানুষ একাকী – শেষ নিয়ে ভাবছো কি? যেতে দাও – তাকে যেতে দাও

যে-কথা বলবার কোনো মানে নেই – তবু জীবনকে বলি জীবনের কথা ভাবছো কখনো?

কোনো কি চিহ্ন, কোনো কি ক্ষতরেখা রেখেছো কখনো?

একলা হয়ে দাঁড়িয়ে থাকি, আকাশ থমকে আছে, ভালোবাসাহীন শহরে ভোরের কাক ডাকে –

এভাবে নয় যে, এভাবে ভাবা যায় না!

একজন মানুষ একাকী – ভালোবাসার কাছে, মৃত্যুর কাছে, ব্যথার আঘাতের কাছে, সুখ-আনন্দের কাছে একাকী!

এই জীবনের মৃত্যু কাছাকাছি বসে আছে পাশে – ঢাকার আকাশ ভেজে বুড়িগঙ্গার বাতাসে –

এভাবে চলে যায় চলে যায় সব একাকী।

শেয়ার করুন

Leave a Reply