কামাখ্যা-নারীর পায়ে পায়ে

লেখক:

শিহাব সরকার

 

অরণ্যেই যেতে হয় দীর্ঘ অবকাশে

বৃক্ষ আমার মা, পাখিরা সব বোন

অরণ্যে লালফৌজ, অ্যাম্বুশ

তবু যাবো বনগহনে।

 

আমার ভেতর থেকে নেমেছে গুহাসিঁড়ি

কাজের ফর্দ উড়ুক হাওয়ায়।

 

বনের ভগ্নাংশ আছে ইতি-উতি

তারপর বনবাস, পালিয়ে থাকার পর্ব

পাগলা ঝোরার নুড়ি, খোঁপাচ্যুত ফুল

পাহাড়ে কামরূপ পুরনারীদের জাদুটোনা

 

হাইওয়ে-কিনারে শস্তা জমি, বাংলোতে লোচ্চামি।

 

ক্ষয়কাশে নষ্ট ফুসফুস

কে না বাঁচতে চায় আরো দুটো দিন,

বড় কষ্ট, ডাকিনীর হাতছানি দেখে উঠি

গিয়ে অরণ্যপ্রান্তে নিষিদ্ধ পাহাড়ে।

 

ভুডুমন্ত্র, মড়ার খুলির সুরায় রাত্রি।

তারপর ভোরের ঘাসবনে, গুল্মঝাড়ে

ঘুরি কামাখ্যা-নারীর পায়ে পায়ে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply