কেন যে তোমার সঙ্গে

লেখক:

হায়াৎ সাইফ

কেন যে তোমার সঙ্গে দেখা হলো এমন অনুর্বর দিনে
বৃষ্টির মৌসুম চলে গেছে বহুদিন
শুষ্ক বাতাসে চামড়াও ফেটে যায় রক্ত ঝরে সর্বত্র শরীরে,
কেন যে তোমার সঙ্গে দেখা হলো এমন বেমক্কা দিনে
চারদিকে যখন মন্বন্তরের মতন সমূহ রণন খেলা করে,

তবু কেন প্রতিটি অঙ্গে তোমার অরণ্যের মাদকতা,
সবুজের চিকন আভাস লাবণ্যের দৃপ্তি ঝরে চোখে?
শবের মতন আমি তবু তোমার অঙ্গুলিস্পর্শে কেন জেগে উঠি
মুক্তক ছন্দে যেন মেতে ওঠে খেলা বারবেলা অথবা অবেলা মনেই থাকে না,
প্রতিভাত হয় যেন চারদিকে প্রজাপতি ওড়ে, মৌমাছি ফেরে চাকে,
আকাশেও রঙ লাগে, ফের মনে হয় তুমি যেন বড় বেশি গভীর প্রগাঢ়,
নগ্নিকা মূর্তির মতো তটিনীর তরঙ্গিত রূপ এখনো চিকচিক জাগে
এই গ্রীষ্মেও ছলছল জল ঝরে কুলকুল বয়ে যায় দিগন্ত ছাপিয়ে,
তুমুল তৃষ্ণার মতো দেহ যেন বহুকালের প্রস্ফুটিত অনাঘ্রাত গোলাপের মতো
কল্পনায় জেগে আছে যেন শিল্পীর অাঁকা, কোথাও কমতি নেই রূপের আমেজ,
ভালো হোত যদি এইখানে শেষ হতো কথা তবু সেই প্রাচীন বারতা চারদিকে রটে যায় ক্রমে –
সংগ্রামে কর্ষণে শ্রমে মানুষ বেঁচেছে বহুদিন এইভাবে ক্রমে ক্রমে বইবে এই বহতা জীবন,
সেই সময়ের মধ্যে দিয়ে মেঘনার স্রোতের মতো যদিও পাড় ভেঙে যায় ওই স্রোতে বিলীন আমিও।

(২৯.০৪.২০১২)

শেয়ার করুন

Leave a Reply