ঝাঁপতাল

লেখক:

সুহিতা সুলতানা

 

এক স্বপ্নের রাতে জল ও জালের খেলা দেখতে গিয়ে

ধীবরের জালের ভেতরে দেখেছি আমি তার চাঁদমুখ

মায়ার ফাঁদে আসি জলে নেমেছি তাকে ছুঁতেও

পারিনি। প্রতিরাতে অপাপবিদ্ধ আলো হয়ে ঘূর্ণায়িত

নাভির ভেতরে তৃষ্ণার নদী হয়ে ভাসিয়ে নেয়

ঝাঁপতাল। মগ্নতার ওপারে ডুবসাঁতার খেলে নীল

ফড়িঙের ডানা। মাঝরাতে ঘুম ভেঙে গেলে

ঘনীভূত হতে থাকে বিষাদের কালো ছায়া

 

দুই

আমার মনের মধ্যে ঘুমিয়ে আছে ভোরের দোয়েল পাখি

যাকে ভালোবাসি আমি সে তো থাকে অন্য কোনোখানে

প্রতিদিন জীবন থেকে যখন একটি করে দিন কমে যেতে

থাকে তখন ভাঙা কাচের টুকরো ক্রমশ অপেক্ষা

এবং অনুতাপের মধ্যে গড়িয়ে গড়িয়ে যায়

 

তিন

সন্ধ্যার আনো নিভে গেলে তোমাকে মনে পড়ে আবার

সমুদ্রপাড়ের ছেলে তুমি ভালোবাসা ঢের বোঝো…

এই নাও অর্ধেক জীবন তোমাকে দিলাম। এটা কি ভুল

নাকি আগুনের বিমর্ষ বিরাগ? নাগরিক জীবনের সব

কোলাহল ছেড়ে মন চাই যেদিকে দুচোখে যায় চলে যাই

শেয়ার করুন

Leave a Reply