বন

লেখক:

শুভাশিস সিনহা

 

ভেবেছি বনের মাঝখানে গাছ হয়ে ছলে ভানে ঝড়ে জলে

শীতল-শীতল শিহরণে নিজের ভেতর থেকে কোনো এক

পরশন টের পাওয়া যাবে, ছুঁতে গিয়ে আঙুলে অনুভূতির

মরা-ভাষা পাঠে ভুল করে ভয়ে-ডরে পালানোর প্রেমরাত

ভরিয়ে রেখেছে দেহ, মনের কোটরে পুরে রাখা পাখি, গান

শেখে নি কখনো, শুধু সুর পেলে বাতাসে বাতাসে ঠোঁটে তার

যাতনার শিস, পাখায় পাখায় মেলে দেয়া রোদ, দিন শেষে

নাছোড় স্মৃতির মতো লেগে থাকে, টেনে তোলো, যেয়ো না অতলে

 

ভেবেছি বনের মাঝে ভালো থাকে মন, গাছ হয়ে, পাতাগুলো

আলগোছে ঝরে যাওয়া দিন-আয়ু-ভোলানো চোখের পানি, তবু

ফিরে ফিরে আসে শিকারি, দাপটে গুলি ছোড়ে, ভ’রে বোবারাত

নিনাদে নিনাদ, নূপুর পায়ের থেকে খসে গেলে কার নাচ

থেমে থাকে বাসনার পলকে পলকে, হাতে সব ধ’রে আসে

ছায়া রোদ সবুজ রুপালি মায়া, রাঙা মুখ, নভোনীল প্রেম।

সোশ্যাল মিডিয়া

নিউসলেটার