বসন্তের পাতা খোলে

সোহরাব পাশা

 

ধুলো কখনো ময়লা হয় না

 

ভুল থাকে বলেই তো শুদ্ধস্বর ভূগোল রচনা

নদী-পাঠে ধূলি নেই বুকভরা জলের অক্ষর

ঢেউ তোলে বুকের ভেতর,

 

তোমার লাবণ্যছায়া কামিজের নীল ফুল ভেসে গেছে দূরে

জলের আঙুলে তুমি নুয়ে পড়ো আজ

সহজেই

ভাঁজ করা কাগজের ফুলে হেসে ওঠো

 

হঠাৎ একটি লাল ঘোড়া তেড়ে এলে ধুলো ওড়ে

অগ্নি ও জলকাব্য পাঠে ধুলোদিন শিক্ষিত হয় না

ওড়ে নিথর আঁধারে স্বপ্নছেঁড়া ঘর;

 

দরিদ্র আঙুল জানে মৃত্তিকার শূন্যপাঠে

শূন্য বৃক্ষের শেকড় খুঁজে ক্লান্ত পা’য়

সন্ধের চৌকাঠে দাঁড়ায় সোমত্ত দুপুর

অতঃপর রাত্রি পরে স্মৃতির ঘুঙুর

 

আঁধারের গলিপথে সকালের ফুল ঝরে যায়

 

পৃথিবীর এই গাঢ় ক্লান্তির ভেতর

অলক্ষক্ষ্য নিবিড় পাশে বসে চুপি চুপি

কে যেন হঠাৎ বসন্তের –

পাতা খোলে

শেয়ার করুন

Leave a Reply