বাজিকরের মৃত্যু

ওবায়েদ আকাশ

 

আগুন নিয়ে আমি খেলছি বাজিকরের খেলা

বাজিতেই উড়ে এসেছে এই খেলার সমূহ প্রস্তাবনা

 

এত এত দর্শক যারা কেউ বাজার থেকে ফিরছে

কেউ বাজারে আসছে –

আর মধ্যবর্তী ব্রিজের ছায়ায় জ্বলন্ত উনুনের ওপর

নিজেকে শুইয়ে দিয়ে উৎসুকের পকেটের দিকে

বাজিকর ছুড়ে মারছে আগুনের গোলা

 

কেউ পেটভর্তি ক্ষুধা, কেউ গাভর্তি জন্মদাগ বিছিয়ে নিয়ে

হাউমাউ করে কাঁদছে, কেউ আবার রেললাইনের

সিস্নপার ধরে টানতে টানতে তুলে দিচ্ছে যানবাহনের

সুবিন্যস্ত প্রাচীন কেচ্ছায়

 

এই সব প্রান্ত পেশাজীবী

যারা প্রত্যেকে আমার বাজিতে বিমুগ্ধ হয়ে

সন্ধে নাগাদ সঞ্চয়ের সিংহভাগ সোৎসাহে

সমর্পণ করে যায় –

আর তাদের উৎসাহসমেত বাজার শুরুর প্রাক্কালে

ব্রিজের ছায়ায় উনুনের ওপর আমাকে জ্বলতে দেখে যায় –

তারা তো প্রত্যেকে খোঁজে বাজিকরের তুমুল দ্যোতনা

 

যারা আমার জীবিকাবৃত্তি হাতযশ নিয়ে সন্দেহজ্ঞাপক

এটাওটা বলাবলি করে

তাদের সুললিত গায়ে দাউদাউ আগুন লাগিয়ে প্রতিশোধের

খেলায় কী এক উন্মাদনা গোপনে নিভিয়ে রাখি রোজ

 

তবু পরক্ষণে দেখি, নদীতে ঝাঁপিয়ে পড়ে কী করে

জীবন বাঁচাতে মরিয়া মানুষ – ভেসে উঠছে অন্য কোনো কূলে

 

আর আমি নিতান্ত বর্ষণে শুনতে পাই না আমাকে ঘিরে

স্ত্রী-পুত্র পিতা-কন্যার ব্যর্থ আহাজারি!

শেয়ার করুন

Leave a Reply