বৃষ্টি, আজ কেন হবে লাশ?

লেখক:

সাখাওয়াত টিপু

 

কে তুমি কোমল জল, বলো : বরফের কলা

বৃষ্টি যেন বিঁধে আছে মিকাইল, গাঙুরের ফলা

না উত্তুরে, বহুদূরে এখন কেবল গাইবে বাতাস

লাল হয়ে ইতিহাসে ভেসে যাবে মানুষের লাশ!

 

আজ ঝড়ে বর্ণ মুছে যায়, কে তুমি সুসুপ্ত চোরাটান

খোলা মুনাফার মতো ঝরে ঝরে যাও, কি একাকী প্রাণ!

না হয় চিনবো পরে, ওহে ক্লায়োকেশি ওহে বজ্রপাত

এমন সন্দিগ্ধ চোখে খেলে কোন বাণিজ্য সম্পাত?

 

যত দূরে যাও, উড়ে উড়ে ছিন্ন ছিন্ন গোপন কণায়

প্রাণ আর ভূমি ছাড়া তুমি রোজ গড়াবে কোথায়?

কেন তুমি ল-ভ-? আলোর স্ফটিক নাকি মিকাইল

একবার বলো তুমি : বস্তুর ভেতর আলেখ্য নিখিল!

 

বৃষ্টি যদি লাল হয়, তবে উলটে যায় দিন আর ফাঁদ

কালো ছাতাটিকে দেখলেই মনে হয় দুনিয়ার ছাদ

পাতালে যাবার আগে, তুমি গাইলে কি গোপন গান

লাফায় শূন্য কি মহাশূন্যে তোমার বিমূর্ত সম্বিধান?

 

রক্ত শুকাবার আগে

ইতিহাস হতে উড়ে যায় কালো কাকাতুয়া

দেখি রাজহাঁস, শেয়াল, কুকুর আর কিছু

মানুষের মতন উ™£ান্ত ডাহুকের অট্টহাসি

রাশি প্রেম ভাসতে ভাসতে ডুবছে গঙ্গায়

 

রসুনক্ষেতের পাশে কোয়া দেখি আর শুনি

আমাদের গ্রাম নাই, নাম নাই, প্রাণ নাই

আমরা কোথায় আছি যেন সব মরা ডালে

আধমরা পাখিদের চুম্বন করেছি বেহুদাই

 

কারা যে ঘুঘুর খোপে বসে প্রতিবেশিনীর

চোখে চোখ হাতে হাত গোটানো খোঁপার

বাঁধ খুলে বলেছিল : ফুল তো ঠু-াই হয়

যেভাবে পালকে লেখা বাইরের ইতিহাস

 

রক্ত শুকাবার আগে লিখে রাখো কচিঘাস

রজঃস্রাব বন্ধ হলেই কেবল জননী হয় না!

শেয়ার করুন

Leave a Reply