বোট স্টেশন ফায়ার স্টেশন

লেখক:

জলধি হালদার

এই জলপ্রান্তরের গোধূলিসন্ধিতে দুরকম ঘণ্টি বাজে
একটি লাগাতার, একটি সেভেন শর্ট ওয়ান লং।
ঘণ্টি বেজে উঠলেই জাহাজের আনিতে স্পষ্ট রবিনসন ক্রুশো।

বুকে লাইফ জ্যাকেট বেঁধে দৌড় দৌড়।
বোটের প্ল্যাগ এঁটে, ল্যাসিং খুলে স্টার্নসিট, বোম্যানেরা তৈরি
হারবার পিন সরিয়ে বকের গলার মতো ডেভিট ঝুঁকে পড়ে জলের দিকে।

আনিতে গোঁফদাড়িওলা ঝাঁকড়াচুলো ক্রুশো আপন মনে হাসছে।
যার অর্থ আনন্দ হতে পারে, বিষাদও হতে পারে
অ্যাংকার চেন-এ লিখছে তারিখের পর তারিখ।

যখন ঘণ্টি লাগাতার চেল্লায়, যেন বলে আগুন, আগুন।
হোসপাইপ ধরে জল ছেটাচ্ছে কেউ
সিওটু, ডিসিপি এক্সটিংগুইসার ফাটিয়ে দিলো কেউ।

আগুনের কাছে যাওয়ার পোশাক পরছে কেউ
সংকেত-দড়ির একটান দুটানের অর্থ বুঝে নিচ্ছে কেউ
এসে গেছে স্ট্রেচার, ব্ল্যাংকেট, রেসপিরেশনের কৌশল শিখছে কেউ।

এই জিরো আওয়ারে
এই জলপ্রান্তরের গোধূলিসন্ধিতে চারিদিকে নীল ছাড়া কিছু নেই
নীল বুঝি খুব মায়ামমতার রং!

ক্রুশো তখন হাঁটু গেড়ে যিশুর প্রার্থনায়
আমি চকিতে দেখে রাখি ফিন্ডার হিসেবে ব্যবহার করা
বড়োসড়ো টায়ার, ফোর বাই ফোর একগোছা ডানেজ।

* আনি – ফোর ক্যাসেল ডেক। নাবিকদের কথ্যভাষায় ফকসেলও বলা হয়।

সোশ্যাল মিডিয়া

নিউসলেটার