ভাঙতে যে পারে

লেখক:

পবিত্র মুখোপাধ্যায়

 

ভাঙতে যে পারে, গড়তেও তাকে জানতে হয়;

শুধুই ভাঙার খেলায় যে থাকে, ধ্বংসেই

দক্ষতা তার; টানতে নিয়ত অবক্ষয়

হিংস্রতা, ঘৃণা শরীরের প্রতি অংশেই।

 

সৃষ্টির কাছে মগ্ন যে থাকে, সময় তার

আবিষ্কারের তুরীয়ানন্দে দিন কাটে;

সময় থাকে না কে কাকে দেখছে অবজ্ঞার

হিমচোখ মেলে বাংলা অথবা গুজরাটে।

 

নির্মাণ অথবা সৃষ্টির মহাযজ্ঞে সে

বিভোর বলেই তুচ্ছের প্রতি দৃষ্টি নেই;

ছুড়ে দিতে পারে সামান্যকেও অবহেলে;

বাধা দিতে এলে ছুড়ে দিতে পারে অনায়াসেই।

 

জীবন তো এক কঠিন অংক। যোগ বিয়োগ

গুণ, ভাগ করে মেলাতে পারছে কজনই বা!

আজ ভালো, কাল শরীর ধরেছে কঠিন রোগ;

সুখ চলে গেছে, দিনরাত শুধু যন্ত্রণা।

 

তারই মাঝখানে পাই যদি কাজ নির্মাণের,

করে যেতে চাই। নিমগ্ন রবো সৃষ্টিতে।

মহাপৃথিবীর কর্মযজ্ঞে আমিও ফের

যোগ দিতে পারি, মন থাকবে সে দৃষ্টিতে।

 

যে শুধু ভাঙতে পারে, নির্মাণে দেয় না মন

ধ্বংসযজ্ঞে আহুতি দেবে সে সারাক্ষণ।

সোশ্যাল মিডিয়া

নিউসলেটার