এক নগরের অসভ্য ইতিহাস

লেখক:

শারমিন সুলতানা রীনা

 

স্বপ্নভাঙা এক নগরীর ইতিহাস খুঁড়ে

বের করে আনি প্রত্নতাত্ত্বিক সুখ।

ইটের দেয়ালে খসে পড়া পলেসত্মারা

কত নির্মাণশ্রমিকের বেদনার ভাঁজ

কে রেখেছে কবে তার খোঁজ?

তারপরও খুঁজে ফিরি সভ্যতার ইতিহাস।

দেয়ালের রঙের মতো মানুষও ভোল পালটায়।

ভেতরটা থেকে যায় অজানা-অচেনা।

যে সভ্যতায় গড়া বাহারি পাথরের ইমারত

ভেতরে তার ততটাই আদিম বন্যতা।

কারো অনাহারি চোখ চেয়ে থাকে

খোলা আকাশের দিকে,

অন্যদিকে বদ্ধ দুয়ারের ওপাশে কারা

নির্লজ্জের বেশে

রঙিন পানীয়ের আদিম রসে নিমজ্জিত?

আমি যে শ্রমিকের লাজরাঙা বউ তার

অভাবের সংসারে প্রতিবাদ মিছিলে রূপ নেয়

শুধু একটা লোহার হাতুড়ি চাই

মুহূর্তে সাইক্লোন হবো।

আজ আমার কোনো গস্নানিবোধ নেই

যে সমাজে দুধের শিশু অনাহারি মায়ের স্তনে

দুধ না পেয়ে রক্ত চুষে খায়

বৈষম্যের এই নিরন্ন দেশে

আমি কারো রক্তচক্ষুর কাছে নতজানু নই \