চোখে অনাদি জল

লেখক:

শিহাব সরকার

বিজন পাহাড়ে হেমন্তের হিমকুয়াশা
বনপথে একা হাঁটি, দূরে
আলোঝলমল সার্কাসে ধুন্ধুমার বাদ্যব্যান্ড
অরণ্যমন্দিরে নিভু-নিভু লণ্ঠন, সমস্বর স্তবগান।

শুনছো না ঝোপেঝাড়ে পিশাচের কানাকানি
ডিস্কোতে মুখোশের আড়ালে দৈত্যদানো,
শহরে চলছে খুব সান্ধ্যভাষা, গূঢ় সংকেত
ভিড়ের মধ্যে অচেনা মুখ এই জাগে, হারায়।

বনের ভিতর জমাট ঠান্ডা, তার চেয়ে ভয়
আগুনের পটে রক্তের পিচকিরি
অন্ধকারে ক্ষুধার্ত কালো অজগর। উন্মত্ত মিছিল
থাবা মেলে ছুটে যাচ্ছে গ্রামের দিকে।

তারপর চিৎকার আর্তধ্বনি অগ্ন্যুৎসব
সব পুড়ে ছারখার — এই কি তাহলে কলিযুগ?
ধোঁয়ার কুণ্ডলীর মাঝখানে
পদ্মাসনে স্থির বুদ্ধ। চোখে অনাদি জল।