জানি না জীবন হৃদয়ে কেন যে ভ্রান্তিরে দিলো ঠাঁই

দিলো প্রশ্রয় ভুল পাত্রের মরণমদিরা গিলে

নাকি তাই ছিল জীবনডানায় ঝড়তোলা প্রাণপাখি!

কে জানে কী ছিল ছিল-বা কোথায় শুদ্ধ বা ভুলে-ভরা

পায়েচলা পথে একালের যান ঠেলে

              এগুনো-পেছানো খেলা;

প্রগাঢ় রোদের কাঠফাটা দিনে অসহ গরমে ঘেমে

কালকে ভুলিনি – মানবীয় ভুলে ঘটেনি ব্যত্যয় কোনো

বেতালা বাতাসে হয়তো আমার তাই ছিল কাল

                ছিল তাই সংকট –

জানি না জীবন কী করে ফুরাবে কোনো একদিন কবে

বিছানার দূর নির্জন কোণে চিৎ হয়ে শুয়ে

কোনো একদিন – হয়তো সেটাই প্রীতিহীন অবসান

মরা কার্তিকে নাকি পউষের গাঢ় নীল মাঝরাতে!

তখন কোথাও আলো নেই – নেই শব্দের ছিঁটেফোঁটা

রাত শুয়ে আছে রাতের মতোই যেন নির্জন নীল

সাগরের বুকে কোনো দ্বীপভূমি প্রিয়

  কোথায় বন্ধু কোথায়-বা কার জীবনের প্রেমগান!

Leave a Reply