টর্চ

লেখক:

আশরাফ আহমদ

স্বপ্ন তো দিলেই,
টর্চটাও নিয়ে গেলে!

চিরজীবী অসুখের বীজ,
কষ্টের কাঁকর যত
মুখের ওপরে ছুড়ে
ফিরে গেলে স্থায়ীভাবে অপর আলোয়,
স্মৃতির ঘুণেরা আর অথই অন্ধকার
অবিরাম গিলে খাচ্ছে আমার সময়।

যাওয়ার বিপক্ষে, তবু থাকতে বলিনি –
এই দোষে-মতিভ্রম,
এই ভুলে-ছারখার,
ছত্রখান, গোছানো জীবন।
অতল পেয়েছি বলে, তলে?
শীতল পাতাল হলো আমার ঠিকানা!

বিবমিষা, হাতড়ে বেড়াই
স্পর্শ চাই, শ্বাসের বাতাস চাই।
মেলে না কাঙ্ক্ষার জল, গরমায়্ –
যাওয়ার সময় তুমি
নিঝুম শূন্যতা ছাড়া
চারপাশে কিছুই রাখনি।

আমার চাওয়ারা আজ বড় বেশি অশোভন,
অন্যায্য যদিও,
প্রচন্ড বিভ্রমে-ঘোরে
ছায়াকে কেন্দ্রতে রেখে ঘুরছি লাটিম।
আলোহীনতার ছানি ঢেকে ফেলে সফল আকাশ,
তাই আর হাঁটছি না সুদূর নক্ষত্রে রেখে চোখ।

জ্যোতির্ময় বিশ্বে কোনো টেলিস্কোপ নেই,
দূরদৃষ্টি নেই।
এখানে অভাজন আছে।
অন্তঃসারশূন্য এক পথিকের
জীবন বিছিয়ে আছে টর্চহীন ঘুটঘুটে পথে,
অনিশ্চিত আলোর আশায়।