ত্রিশ লক্ষ বছর ধরে তাকে খুঁজছি

মেহেদী হাসান

আমি যাকে পবিত্র চুম্বনে রোদ্দুর করতে চেয়েছিলাম
আঁধার ভালোবেসে সে রাত্রি হয়েছে।
সমস্ত ফাল্গুন কেটে গিয়েছে কৃষ্ণচূড়াহীন।
আমিও জানতাম চাষাবাদের চর্যাপদ, পৌরাণিক সঙ্গম কথা
অথচ, বেদনার মৌলিক অর্থ যার কখনোই জানা হয়নি;
এতো নিঃশব্দে কেউ ভালোবাসেনি প্রভু!

ত্রিশ লক্ষ বছর ধরে তাকে খুঁজছি…

মিরপুর থেকে প্যারিস
মক্কা থেকে প্যালেস্টাইন
দীর্ঘ থেকে দিগন্তহীন পথে!

আজ কে স্বর্গে যাচ্ছে?
ওখানে তুমি আছো?
আমি তোমায় বারবার ডেকে যাবো আঁধারের যাত্রাপথে
আমার ঊনত্রিশ হাজারতম জন্মে
আমার পাঁচশত পঁচানববইতম ভালোবাসার শব্দে
একশটা পৃথিবীর মধ্যে।
অর্ধেক প্রেম আর কিছুটা অপ্রেমে!

ত্রিশ লক্ষ বছর ধরে তাকে খুঁজছি…

আমি মূলত শুশ্রূষা চেয়েছিলাম
আমি মূলত মানুষের থেকেও মানব হতে চেয়েছিলাম!
পৃথিবীতে আমরাই প্রথম ভালোবাসতে পেরেছিলাম
পাখির গান আর সঙ্গমের শীৎকারের পার্থক্য কেবল আমরাই জানতাম!

আমি তোমাকে স্পর্শ করতে চেয়েছিলাম
এক আলোকবর্ষ দূরত্বে করাঘাত করে গেছে সমগ্র আঙুল
আমি কেবলই ঠিকানা চেয়েছিলাম
তোমার চোখের দিকে তাকিয়ে বেমালুম ভুলে গেছি জন্মের তত্ত্বকথা!

ত্রিশ লক্ষ বছর ধরে তাকে খুঁজছি
ষাট লক্ষ বছর থেকে যাবো মানুষের দরজায়
ত্রিশ লক্ষ বছর ধরে তাকে খুঁজছি
একশত বিশ লক্ষ বছর করে যাবো চরম করাঘাত।

পরাজিত প্রেম তোমায় দেবো না প্রিয়!

Leave a Reply

%d bloggers like this: