দুটি কবিতা

লেখক:

অলোকরঞ্জন দাশগুপ্ত

অজ্ঞেয়

এবার যে-নৌকো এসে কূলে ভিড়ল আমি জানি

ফেরার উজানি স্রোতে আমি তার একাকী সওয়ার।

লোডশেডিংয়ের মোম জ্বেলে ধরে লক্ষ করি

তার মাপ অবিকল আমারই দেহের সম্পূরক।

তবে কি কফিন সেটা? অথবা কাঠের জামা

বুঝতে পারি না। গলুইয়ে যে বসে আছে সে

কি অন্ধ নাকি তার চোখে বাঁধা আমারই

কাফন? আমি তার জায়গায় উঠে এলে সে

যদি আমার হয়ে ডাঙায় নামে তাকে বুঝি জন্মান্তর বলে?

এতদিন বেঁচে আছি, মৃত্যুর রহস্য নিয়ে কিছুই জানি না!

 

 

জয়শ্রী বিষাদ

এবার ফসল অফুরন্ত, প্রত্যাশাতিরিক্ত সোনা

ঝরে পড়ছে, নিরুদ্দেশী কিশোর ফিরল মায়ের কোলে

একটু আগেই, এই বিষয়ে আমায় কিছু বলতে হবে

যষ্ঠীতলার মন্ডপে তাই একটু পরেই, আমি এখন

সেই সুবাদে সানন্দে প্রস্ত্ততি নিচ্ছি সপ্রতিভ

জয়শ্রী বিষাদ, তবু আমায় ছেড়ে চলে যেয়ো না