দুটি কবিতা

লেখক:

হাসান হাফিজ

 

দীর্ঘ হও লানত বর্ষণ করো

 

‘পিপাসা’ শব্দটি আমি আক্রোশে ও ভালোবেসে

ছিন্নভিন্ন করে ফেলি, পেতে চাই ঈষদুষ্ণ জল

কিন্তু এই প্রচেষ্টা নিষ্ফল,

মরীচিকা ভ্রম শুধু দীর্ঘ হয়, মোহনীয় নয়

এর কোনো গূঢ় অর্থ মরতবা রয়েছে নিশ্চয়

আমি এই প্রচেষ্টা জীবনীশক্তি সহিষ্ণুতা ক্ষয়

করে করে আরো নিঃস্ব ভারাতুর হই

তারপরও বেগানা প্রান্তর ব্যেপে উৎকর্ণও রই

এই যে অপেক্ষাতৃষা তারও মধ্যে শিশুতা রয়েছে

ছন্দ আছে অন্ত্যমিল আকাঙ্ক্ষা ও সমর্পণ

আসক্তি আশ্লেষ সবই বিদ্যমান,

তারপরও কেন যে কাঙালপনা, কেন এই আকুলিবিকুলি

নির্মূল হবে না এই সর্বহারা দেউলিয়াত্ব

আমি জানি ভালো করে অনিচ্ছায় দৃষ্টান্ত হয়েছি

স্বপ্নভুক জীবনের সমস্ত গতায়ুপ্রায়, শঙ্কা কিছু নাই

‘পিপাসা’ তোমার সঙ্গে দেখা আর এ-জন্মে কী হবে

সম্ভাব্যতা কিছু মিছু আছে নাকি তাও তো জানি না

হে পিপাসা দীর্ঘ হও, লানত দেওয়ার মতো ক্ষমতা পেয়েছো

সুতরাং নিষ্ঠুরতা, স্বৈরাচার তোমাকেই একান্ত মানায়…

 

অমৃত কবিতা

 

জিয়ল মাছের স্নিগ্ধ কমনীয় সৌন্দর্যের আভা

রয়েছে তোমার? লোলচর্ম কখনোই নও।

উড়তে পারো মেঘ হয়ে, বৃষ্টি হয়ে নামো

মৃত্তিকা তোমাকে পেয়ে আনন্দিত ডগোমগো

মুমূর্ষু তোমাকে চায়, তুমি হচ্ছো অমৃত জীবন!

নিন্দামন্দ কাঁটা হুল কতো বিঁধছে রক্তের দ্রবণে

সুগন্ধিত ফুল তুমি সহজেই ফোটাতে সক্ষম!

তোমাকে জীবন বলি, ছন্দায়িত কবিতাও বলি

তুমি শব্দ, নশ্বর মোটেও নও, পরম্পরা তুমি!

যতদিন এই ভূমে তপস্যা ও পিপাসা রয়েছে

তোমার শরণ সিদ্ধি সঙ্গ সুখ চাইবে সকলে

ঘোরতর তৃষ্ণাতাপে মরে যাবে, জন্ম নেবে ফের!