রাতুল দেববর্মণ

 

এখানে কুরাত্রি ধড়ফড় করে

নিবিয়ে দিয়েছে কুমারী চন্দ্রোদয়

বুকের বেবাক ঢেউ উথালপাতাল

– নীরবে দেখেছে সব অরণ্যচর

 

তদন্তে এসেছে যারা –

তারা শোনে পাতার ক্রন্দনধ্বনি

কিছু পোকা ওড়াউড়ি করে

পাতার ফাঁক দিয়ে দেখছে বেওয়ারিশ রোদ

নষ্টনাকফুল ছুঁয়ে গন্ধশুঁক গোয়েন্দা কুকুর

ফ্যালফ্যাল তাকায় নেশাগ্রস্ত মনিবের দিকে

 

মরা রক্তের ভাষা বদল হতে হতে

মাটি ফুঁড়ে ভেসে ওঠে নীরক্ত হাত

 

স্মরণে জ্বলে শুধু মোমের ত্রিমাসিক আলো

গলে গলে পড়ে তদন্ত-আশ্বাসের শেষ দিশা

Leave a Reply