মন্ত্রমুগ্ধ হই আমি, ভালোবাসি বলে

মনের ভেতরে খুব ভাংচুর চলে

বুকে রেখে ভাঙা কাঁচ পা ফেলে চলি

অযুত অবহেলায় নিজে নিজে জ্বলি

পড়ে থাকা ছাই কেউ দেখে না তো চোখে

বিষাদ পতাকা ওড়ে অনিশেষ শোকে

সেই শোক পাথরের মতো হয় ভারি

শোক ভেঙে আমি আর জল হতে পারি?

ক্ষয় হতে শুরু হয় মনের গোপনে

সেই কথা বলা যায় খুলে জনে জনে?

সেই যে না বলা কথা ইতিহাস হয়

মনের গোপনে সে তো জমে জমে রয়

রাত ভোর হয়ে যায় আসে না সকাল

আমার ভেতরে এক ভৈরবী কাল

গাঢ় হতে হতে আজ আষ্টেপৃষ্ঠে মাখা

তারে তো না ফেলা যায়, না যায় রাখা

এই মনোকষ্ট নিয়ে কাটাই সময়

কত দিন বলো এই কালরূপ সয়?

পারো যদি ভেঙে দাও পাথরের ঘুম

ফিরিয়ে দাও আমায় প্রিয় মওসুম।