প্রচ্ছদ-পরিচিতি

শিরোনামহীন

নিতুন কুন্ডু বাংলাদেশের চিত্রকলা-আন্দোলনে এক বিশিষ্ট ও উজ্জ্বল ব্যক্তিত্ব ছিলেন। তাঁর সৃষ্টির ভুবনে আমরা সংবেদনশীল ও বুদ্ধির দীপ্তিতে উজ্জ্বল এক চিত্রকরকে প্রত্যÿ করি। চিত্রে তিনি জ্যামিতিক অবয়ব গঠন করেন এবং আকার, রং ও বস্ত্তর অমত্মর্নিহিত সৌন্দর্য অন্বেষণ ও উন্মোচন করেন। তাঁর সৃষ্টিতে পরিস্ফুট হয়ে ওঠে সূক্ষ্ম সংবেদন এবং মানবিক অনুভূতির তীব্রতা। প্রকৃতির ছন্দোময় রূপও তাঁর পটে আশ্চর্য মমতায় প্রতিফলিত হয়েছে। ছাত্রাবস্থা থেকে তিনি তাঁর চিত্রে নানা ধরনের পরীÿা-নিরীÿা করে নিজস্ব এক আধুনিক চিত্রভাষা নির্মাণ করতে সমর্থ হয়েছিলেন। খুব সহজ দৃষ্টিপাতেই চেনা যায় তাঁর চিত্রগুচ্ছ।

ভাস্কর্যেও নিতুন কুন্ডু আশ্চর্য কুশলী হাতের পরিচয় দিয়েছেন। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে নির্মিত ‘সাবাস বাংলাদেশ’ ও ঢাকায় ‘সার্ক ফোয়ারা’ তাঁর শিল্পকুশলী ভাস্কর্য।

তিনি ঢাকা আর্ট ইনস্টিটিউট থেকে ১৯৫৯ সালে স্নাতক হন। ষাটের দশকে একক ও বেশ কয়েকটি যৌথ প্রদর্শনীর মধ্য দিয়ে পরিণত হন এদেশের চিত্রকলা-আন্দোলনের একজন বিশিষ্ট শিল্পীতে। সে-সময়ে বাংলাদেশে যে সাংস্কৃতিক আন্দোলন গড়ে উঠেছিল তার নানা কর্মপ্রবাহেও তিনি যুক্ত হন। বিশেষত মঞ্চসজ্জায় তিনি আধুনিক শিল্পগুণ সঞ্চার করে এদেশে এক রম্নচির প্রতিমান গড়ে তোলেন।

ব্যবহারিক বস্ত্তসমূহেও তিনি শিল্পগুণ ও সৃষ্টিশীলতার স্বাÿর রেখেছেন।

তাঁর জন্ম ১৯৩৫ সালে দিনাজপুরে। মৃত্যু ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০০৬।

প্রচ্ছদের ছবিটি ২০০৬ সালে অ্যাক্রিলিকে অাঁকা। সংগ্রাহক বেঙ্গল ফাউন্ডেশন।

Leave a Reply

%d bloggers like this: