কুমুদদাদার হাতে মৃদঙ্গ বাজে না আর!

মন্দির প্রাঙ্গণে আজ সবুজ ঘাসের সমারোহ

সেই দিন চলে গেছে অনন্তের পানে

শুধু স্মৃতি লেগে আছে কড়িকাঠে, কুলুঙ্গিতে আর

নবরত্ন নামের চূড়ায় –

ওখানে ত্রিশূল নেই, পেতলের ঘড়ার সাথে

ওসবও মানুষের ভোগে গেছে!

মানুষই তো, দুপেয়ে জন্তুগুলি

মানুষের নাম নিয়ে

পশু হয়ে গেল কেন  –

সেই বিচারের দিন আজো এলো না।

কুমুদদাদার মা শেফালী জেঠিমার

ছানিপড়া চোখে ঝাপসা মন্দির শুধু নয়

ঝাপসা সকল মানুষ, গাছপালা, আকাশ –

দিন আর রাত্রি সব একাকার হয়ে গেছে। সব তিথি বিষণ্নতার মালা গাঁথে দিন-রাত।

Leave a Reply