বেজোড় শালিক

(কবি তারিক সুজাত প্রীতিভাজন)

মাকিদ হায়দার

একটি শালিক, বেজোড় শালিক
দুপুর রোদে কাঁদছে দেখে
থমকে গেলাম \

দিনটা সেদিন কাটলো আমার
বৃথা কাজে।

ভেবেছিলাম দুপুর রোদে
সাঁতরে যাব নদীর ওপার, ওপারে যার
বসতবাড়ি, তাহার খোঁজে
যে-মেয়েটি বলেছিলো
এলে পরে কথা হবে।

ফিরে এলাম দুপুররোদের দুহাত ধরে।

হঠাৎ দেখি, সেই দুপুরে, বেজোড় শালিক
দাঁড়িয়ে আছে একলা একা।
আমায় দেখে বললো কেঁদে,

জীবন যখন একা, একা, কী হবে আর সেসব ভেবে।
সব চাওয়া তো হয় না পূরণ একজীবনে, তবু আমার
ইচ্ছে করে
থাকব আমি কবির গৃহে

   শালিক এবং আমার কথার 
   মধ্যিখানে ঝমঝমিয়ে বৃষ্টি এলো,
   হঠাৎ শুনি, একটি বায়স, ডাকছে তাকে,
   আয়, ফিরে আয়
   ঘর বেঁধেছি বৃন্দাবনে। 

একটি মানুষ বেজোড় মানুষ ঘুরে বেড়ায় তপ্ত রোদে

Leave a Reply

%d bloggers like this: