বাল্যে গড়ে    মাটির পুতুল   খেলেছি তোমায় নিয়ে

দুরন্ত কৈশোরে   মুছেছি ঘাম   তোমার আঁচল দিয়ে

যৌবনে   কাঁধে রাইফেল   ঘুরেছি নদীর পারে   পথে-প্রান্তরে

ছুঁড়েছি গ্রেনেড   তোমার জন্যে   শত্রুর বাঙ্কারে

প্রৌঢ়ে   স্বজন নিয়ে    গড়েছি   পুতুলের সংসার

বৃদ্ধে তুমি    হয়েছ বেহুলা    আরো   আপন আমার

তোমাকে ছাড়া   আর তো কোনো   স্বপ্ন দেখিনি

তোমাতেই পেয়েছি খুঁজে   স্বরূপ  বিশ্বজননী;

যখন ওরা বলেছে তোমার দারিদ্র্যের কথা

বলেছে তোমার আঁচলের   মলিনতার ব্যথা

তবু তোমাতেই  রেখেছি চোখ   অর্জুনের মতো

ধ্রুবতারা সম    আমার মনঃসংযোগ যতো

একদিন ওই মুখে   দেখেছিলাম   জগৎমাতার রূপ

ঈশ্বরকে চাইনি   আর   দিইনি কোনো   অপার্থিবে ডুব॥

Leave a Reply