ভ্রামণিক

রাতুল দেব বর্মণ

 

ভ্রমণবন্দনা যখন দরজায় এসে নাড়া দেয়

শুদ্ধস্বরে ভ্রামণিক একা একা গান গেয়ে ওঠে,

ভিতরে সাগরের উতাল সমত্মরণ পাহাড়ের হাতছানি

ঝরনার গায়ে দেখে মেঘবতী হিমালয় নারী,

কোথাও জঙ্গলপাঠ শেষে মহুয়াবনের নিচে

একা হয়ে পান করে মহুয়া মাদল পানি,

 

যেতে যেতে একদল ভ্রামণিক গেছে আজ তৃষ্ণাবনে

যদি দেখা মেলে সবুজের ভিতর বসমত্মনারী,

যাকে তুমি চেয়েছিলে অরণ্য-রোদে

ভ্যান গঘের হলুদ ফুলে বিকেলের মস্নান আলোয়,

জলের উপরে ভাসে বুদ্বুদ্

শালুক ফুলের অলস অভ্যাস;

 

ভাসতে ভাসতে নাবিকের সাথে

যায় প্রৌঢ় যুবক – দেখে

ধানসিঁড়ি জীবনানন্দহীন হয়ে পড়ে আছে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: