সামান্য আলোর রেখা, এই নিয়ে আশ্চর্য এ-পথে

পেরিয়েছি অফুরন্ত নদীজল তীব্র জোছনায়

আমাকে যে ডেকে নিল মধ্যরাতে ধীবরের রথে

অস্পষ্ট, দেখি না তাকে; পলাতক, মৃদু কুয়াশায়

যে গান শোনায় রাত্রি, তার সুরে স্রোত অবিরল

সেখানে বিহঙ্গ ডাকে, কারা ডাকে, পথিক উদাস

ঠিকানা ঘুমন্ত গ্রাম, গাঙে তবু উজানের জল

আমিও মাটির পুত্র, মাছ-ভাতে করি বসবাস

যে শরীর জলে ভেজা, তার মধুচন্দ্রিমার ঢেউ

খোলা আকাশের নিচে পাল তোলা হাওয়ায় উতল

সেখানে আশ্চর্য শুনি স্নানরতা অলৌকিক কেউ

আমাকেই পাঠ করে, পাঠ করে ধ্রুপদের জল

এভাবেই প্রকাশিত, এভাবেই খাতা খুলে রাখি

উন্মাদ রাত্রির পাশে থাকি আমি, এভাবেই থাকি।

Leave a Reply