সিদ্ধার্থ

লেখক:

চাণক্য বাড়ৈ

 

এই যাত্রা সমাধির দিকে – ধ্যানমগ্ন থেকে এইখানে কিছুটা মৃত্যুর অভিনয়

করা যাক – ভুলে যাওয়া যাক সেই মুহূর্তটিকে, যখন জ্বলমত্ম চিতায় একখ- –

সমিধ কাঠ তুলে দিতে গিয়ে জীবনের দাম সবচেয়ে বেশি মনে হয়েছিল –

 

আহা অবিনাশী গান, বাঁশির শরীরে সাতটি ফোঁড়ের বেদনা গেঁথে দিয়ে, তুমি,

এতখানি মধুর হয়েছ – আহা রং, কত গ্যালন বৃষ্টি ঝরিয়ে তবে উদিত হয়েছ

বাঁকা রামধনু – আর কতটুকু মৃত্যুর অভিনয় করে পার হওয়া যায় মৃত্যুর

তুষার-পিচ্ছিল গিরিখাত –

 

সেই সান্ধ্যপাখিটিকে আর দেখি না – যে-পাখি গাছের প্রতিটি পাতায় মৃত্যুকে

নিয়ে লিখে রেখেছিল জ্ঞানগর্ভ মুখবন্ধ – সেই গাছটিও নেই আজ –

 

তবু আমি, প্রতিদিন তার নিচে বসে থাকি বোকা বুদ্ধের মতো –