সোনার হরিণ

দেবজ্যোতি রায়

 

গল্পের আশ্চর্য পস্নটে তুমি সোনার হরিণ

অনুসরণের মধ্যে তোমাকে পেয়েছি খুঁজে

বাস্তবতা থেকে দূরে, অধরা ডালিম।

অপ্রাকৃত আলো জ্বলে ত্বকে, দীর্ঘশ্বাসে

গীতবিতানের পাতা উড়ে আসে মেঘখ- থেকে

পরা ও অপরাগতি লতাগুল্মে জড়িয়ে পড়েছে

নম্র খুর ছুটে যেতে চায় নক্ষত্রঅসীমে

 

সমুদ্রের বালি ও লবণে তোমার পায়ের ছাপ

কখনো রাতুল, দিব্য, মাংসগন্ধহীন।

সৈকতে ক্রাচের চিহ্ন, তীক্ষন স্টিল

জ্যোৎস্নায় জলরং – ঝাউমর্মমূলে নিহিত সংগীত

তোমারই পায়ের পরিপূরকতা যেন ভিন্ন ধ্রম্নবপদ

মন টেনে নিয়ে যায় বিরহে, মাথুরে।

 

সোনার হরিণ তুমি

অবিশ্বাস্য আমন্ত্রণে কেঁপে ওঠে মিথ ও স্তব্ধতা

Leave a Reply

%d bloggers like this: