মৎস্যকুমারী

জরিনা আখতার

হয়তো তার ডোরাকাটা শাড়ির পাড়ে চোরকাঁটা লেগে আছে

কুয়াশায় ভিজে আছে আঁচল

এলোচুল পিঠে ছড়ানো

অথবা হাত-খোঁপা

কপালে টিপ, চোখে কাজলরেখা

হিজল গাছে ফুটে থাকা গুচ্ছ গুচ্ছ ফুলের মতো অলংকার-শোভিত
                                                                     শরীর,

হয়তো নয় –

অনিন্দ্যসুন্দরী,

চোখ-ধাঁধানো রূপে আলোকিত করা চারদিক

হয়তো কিছুই নয়;

আমি তাকে দেখি না, দেখে না কেউ

তবু প্রতীক্ষা –

সে আসবে, যখন সময় হবে;

আমিও চতুর ধীবর

জালে মাছ আটকানোর কলাকৌশল সব জানা –

কালি ও কলমের জালে আটকাব তাকে,

সাদা কাগজের জমিনে কালো কালো অক্ষরে মূর্ত হয়ে হয়ে উঠবে সেই বিমূর্ত মৎস্যকুমারী।

Leave a Reply

%d bloggers like this: