আধেক বিবৃতি

নুসরাত নুসিন

মাতালের স্বরবিতান পড়ি না আর। পায়ের কাছে জমা হয় একশ একটা ভয়।
চলাচলে মিশে আছে অযুত ভীমরুল। হাওয়া এলে যেকোনো দুলুনিকে ভয় পাই।

আষাঢ় নেমেছে এ কার্তিকের রাতে। পূর্বাভাসে সতর্ক হয় কীটের জীবন।
অজস্র ক্রন্দনের রাতে মশারা ভিড় করে। বই ও খাতার পাশে শুড় রেখে যায়।

আমাকে নিয়ে গাল-গপ্পো করে মাঠের যুবক। আমাকে বিদ্ধ করে
নান্দনিক ফড়িং। ধাতব খাট, পাপ ও পঙক্তির পাশে আমি শুয়ে থাকি।

এ ভূমিতে ফুটে আছে স্বেদ-কামনা যে।

জোৎস্না ও মরণের রাতে অনন্ত আঙুর দুটি জেগে থাকে। এ আশ্চর্য সুরসঙ্গ-
টানা বেজে চলেছে সুরম্য বেহালা।

নত মনে নদীর কিনারে যাই। এ সুরে মিশে আছে ঘাটের বেদনা।

Leave a Reply

%d bloggers like this: