পাতাঝরার অর্কেস্ট্রা

সৌম্য সালেক

 

নৈঃশব্দ্যের চেয়ে কিছু বেশি

খসে পড়ে হিম অনুপাতে

ইথারের সুমধুর তানে ছড়ায় মাধুরী –

ঘাসে ঘাসে, জল ও মাটির কিনারে মনোহর …

 

এসব পাখি শুনেছে আগে

মধুমাসে ভ্রমর শুনেছে

তারপর মেঘেরা বয়ে নিয়ে গেছে হিমাদ্রি-বাতাসে

উত্তর সাগরপারে তাই এতো রাগের হিলেস্নাল

 

এসো উপবনে

বিজন মধুস্বর – পাশে ঘুমায় ফুলেরা

এমন অনাহত নাদে বিরাম ব্যাহত হবে না

সেই রব হলুদ পাতার পাশে মিটমিট মন্দ্র-মোহন বাজে;

চিরদিন সুরধ্বনি কুড়ায় জোনাকি :

নিশিদিন ঘুমচোখে জ্বলে তার সারাদেহ

এ এক প্রাচীন বিহিত!

Leave a Reply

%d bloggers like this: