আমার পুরোনো শহর

সুব্রত বড়ুয়া

সেদিন থেকেই মনের মধ্যে পুষে রেখেছিলাম
এই বাসনা –
যেদিন এসেছিলাম সেই শহর ছেড়ে
আমি আবার ফিরবো, ফিরে আসবো
আমার এই পুরোনো শহরে,
আমার আবাল্য স্মৃতির পাহাড়,
নদী আর সমুদ্রের মিথুনলগ্নতায়
যেখানে পুরোনো ছায়া-বাতাসের মধ্যে
আন্দোলিত হয় নিত্যকাল, যেখানে
খুচরো খেলাধুলোর রঙিন মার্বেলের
মসৃণ শরীরে লেগে থাকে
অবুঝ স্বপ্নের মতো কাদাবালি,
যেখানে –
শুকনো মাছ-কুড়োনো ছেলেটি
কেবল আকাশের দিকে তাকিয়ে
কালো কাকেদের সাথে যুদ্ধ করে –
আর সারাক্ষণ তটস্থ থাকে
ভাগের স্বপণ যেন হারিয়ে না যায়
তার জন্যে।

আমার সেই পুরোনো শহরের
প্রামিত্মক পুরোনো স্মৃতির মধ্যে
ঘোলাজলের নদীটির তীরে
নদীতটের বুকে এলোমেলো ফেলে-রাখা
গাছের গুঁড়িগুলোর ওপর বসে রাজা-উজির খেলা,
আর রুপোলি জগতের অবশেষ ধরে
ঝুলে-থাকা, ঝুলতে থাকা,
সব মনে রেখে দিয়েছি আমি,
কিছুই হারিয়ে ফেলিনি।
সে আছে আমার স্বপ্ন ও স্মৃতিতে
সে আছে আমার প্রতিদিনের
জাগরণ ও বোধের সুতোয় বাঁধা,
বারবার তাড়াতে গেলেও সে কখনো
আমাকে ছেড়ে কোথাও যায় না।

আমার শপথ – আমি আবার ফিরবো
তোমার কাছে একদিন, হেঁটে হেঁটে
অথবা স্মৃতির সুবাস হয়ে \

Leave a Reply

%d bloggers like this: