দেবী

লেখক:

মাকিদ হায়দার

 

[কবি, শঙ্খ ঘোষ শ্রদ্ধাষ্পদেষু]

 

দেখি নাই শুধু শুনিয়াছি

তিনি নাকি অপরূপা।

 

ভাবিলাম,

হইলেও হইতে পারেন তাহাতে আমার

কী, ই, বা আসিয়া যায়

তথাপি বুকের মধ্যে কষ্ট অনুভব করিলাম

চিনচিন করিতে লাগিল অবুঝ হৃদয়।

 

শুনিলাম,

সেই অপরূপার কথা, শুনিবার পর হইতেই অনেক যুবকেরই নাকি

ঘুম হইতেছে না, এমনকি আমার নিজেরও।

 

যদি সেই লাস্যময়ীর কথা না শুনিতাম তাহা হইলে নিশ্চয়ই

ভালো থাকিতাম,

অথচ শুনিবার পর হইতেই তাহাকে দেখিবার আশা

জাগিয়াছে

মনে প্রাণে।

 

সেই অচেনা, অজানা, বিনোদিনীকে খুঁজিতে গিয়া

একদিন পাইয়া গেলাম তাহার নাম ও ঠিকানা,

তিনি যে অপরূপা তাহাতে কাহারও কোনো দ্বিমত নাই

এমনকি আমারও।

 

একদিন যাহারা তাহাকে দেখিতে গিয়াছিলেন

তাহাদের কেহই ফিরিয়া না আসিয়া

এখন সকলেই থিতু হইয়াছেন

সুন্দরবনের গজর অরণ্যে।

 

আমি নিজেকে বারংবার বলিয়াছিলাম অরণ্যে না যাওয়াই শ্রেয়,

অপ্সরাকে না দেখিলে মহাভারত অশুদ্ধ হইয়া যাইবে না,

অথচ আমার

দুষ্টু চোখ, দুষ্টু মন,

একবারও শুনিলো না আমার কথা।

 

শুনিলে হয়তো,

চতুষ্পদ না হইয়া দ্বিপদ হইয়া থাকিয়া যাইতাম।

 

জগৎসংসারে।