বিজয়

বাংলাদেশের মুষ্টিমেয় যে-কজন শিল্পী আন্তর্জাতিক শিল্পাঙ্গনে খ্যাতি ও সুনাম অর্জন করতে সমর্থ হয়েছেন শাহাবুদ্দিন তাঁদের একজন। তাঁর সৃষ্টিতে বাঙালির দীর্ঘদিনের সংগ্রাম, ঐতিহ্য ও জীবনচর্যা নানা দৃষ্টিকোণ থেকে প্রতিফলিত হয়েছে। বিশেষত বাঙালির অহংকার ও গর্ব মুক্তিযুদ্ধের দীপ্ত চেতনাকে ভিত্তি করে তিনি চিত্র অঙ্কন করেছেন। তাঁর হৃদয়ে মুক্তিযুদ্ধের অবিনাশী চেতনা ও যুদ্ধদিনের স্মৃতি এখনো উজ্জ্বল। তাঁর সৃজনক্রিয়ার কেন্দ্রে স্থিত হয়ে আছে মুক্তিযুদ্ধ ও মুক্তিযোদ্ধা। এছাড়া পাকিস্তানিদের নির্মম গণহত্যাও বিষয় হিসেবে উঠে এসেছে। একাত্তরের সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধে এই শিল্পী সরাসরি অংশগ্রহণ করেছেন। এই অংশগ্রহণই শিল্পী শাহাবুদ্দিনের সৃজনধারায় বহুভাবনা নিয়ে নিত্য প্রতিবিম্বিত হচ্ছে। সে-সময়ে তিনি পর্যবেক্ষণ করেছেন বাঙালির অমিত সাহস ও শৌর্য। তাঁর চিত্রে মুক্তিযোদ্ধার অবিশ্রাম পথচলা ও গতি অনিঃশেষ শক্তি নিয়ে প্রতিফলিত হয়। এই গতি ও শক্তি তাঁর চিত্রের বোধে সর্বদাই নবীন মাত্রা সংযোজন করে। তার সঙ্গে যুক্ত হয় শিল্পিতবোধের উদ্ভাবননৈপুণ্য। প্রচ্ছদের তেলরংটি তারই উদাহরণ। এ-চিত্রটি ১৯৯৮ সালে আঁকা।
শাহাবুদ্দিন ১৯৭৩ সালে চারুকলা ইনস্টিটিউট থেকে স্নাতক হন। সে-বছরই ফরাসি সরকারের বৃত্তি নিয়ে উচ্চতর শিক্ষাগ্রহণের জন্যে তিনি প্যারিস গমন করেন। প্যারিসে অধ্যয়ন তাঁর শিল্পপ্রকরণ ও শৈলীকে নানাভাবে সমৃদ্ধ করে। সেখানকার শিল্পবোদ্ধা মহলের দৃষ্টি আকর্ষণে তিনি সমর্থ হন। দেশে-বিদেশে বহু পুরস্কার ও সম্মানে তিনি ভূষিত হয়েছেন। এখন তিনি প্যারিসবাসী।
শিল্পী শাহাবুদ্দিন ১৯৫০ সালে ঢাকায় জন্মগ্রহণ করেন।
প্রচ্ছদের চিত্রকর্মটির সংগ্রাহক আবুল খায়ের।

Leave a Reply

%d bloggers like this: