আমা‌দের জীবন এখন সূচ‌কের মান নির্ণ‌য়ে

টা‌র্গেট ফিলা‌পের আঙটায় ঝু‌লে আছে। নদী

ও জ‌লের সারল্য বোঝে না যেজন সে নিতান্তই 

কসাই। অসম‌য়ে ধারাপাত খু‌লে ব‌সে‌ছে ভণ্ড

না‌বিক। দিগন্ত অব‌ধি কেবলই অপছায়া শস্যহীন বিরানভূমি, রক্তাক্ত না‌ভিমূল। মূর্খ‌দের নগ্ন

উল্লা‌সে আঁধার নে‌মে আসে। ভাষাজ্ঞানহীন 

কর্কশ দিনরা‌ত্রির কা‌ছে জ্ঞা‌নের কো‌নো মূল্য

নেই। স্মৃ‌তি-বিস্মৃ‌তির আয়নায় যেটুকু দেখা

যায় অস্থির হাওয়া ও স্বাধীনতা অবমাননার

গল্প। আমা‌দের মন ও মন‌নে স্বপ্নহীন রোদন

উপমা উৎ‌প্রেক্ষা দু‌র্বিনীত বিপ্রতীপ। মু‌খো‌শের

নি‌চে অসংখ্য মু‌খোশ আর তিক্ততার ইতিহাস

অব‌শে‌ষে স্খ‌লিত চ‌র্বিযুক্ত ঘূর্ণ্যমান অক্ষরহীন

‌ক্লেদ ধূর্ত মুখচ্ছ‌বি বাংলা‌দে‌শের মান‌চিত্র নি‌য়ে

পালা‌তে চায় পদ্মা, কী‌র্তিনাশা নদীর ওপর দি‌য়ে

‌হে দিন ও রা‌ত্রি মায়াবী ঘু‌মের ভেত‌রে তোমার

স্বপ্নহীন ডানা উড়ে উড়ে ছোবল উঁচায়।‌ মানুষ

আজ উদ্দেশ্যযুক্ত পাপ ও পত‌নের ছায়ার

‌ভেত‌রে আব‌র্তিত হ‌তে থা‌কে। সূচক ও সূচ‌নের

ভা‌রে তীক্ষ্ণ হ‌তে থা‌কে, সময় এমনই নির্ঘণ্ট

সূচ্যগ্র। মানদণ্ড ভে‌ঙে ভে‌ঙে প‌ড়ে। ঝল‌সে যাচ্ছে

‌নির্জনতা প্রতিশ্রু‌তির কণ্ঠ‌দেশ, জ‌লের গ্রীবা

Leave a Reply