তিনটি কবিতা

হুমায়ুন আজাদ হাত সেই কবে থেকে বাড়িয়ে রেখেছি হাত প্রতিটি রেখায় ভ’রে আছে শূন্যতা কেটেছে হাজার সূর্য এবং রাত...

ব্যক্তিগত জিরো আওয়ার

খোরশেদ বাহার হেমন্তের এই সকালে কুয়াশা আমার শরীর ছুঁয়ে যায় আমি লাইন ধরে দাঁড়িয়ে আছি যেমন তুমিও দাঁড়িয়ে ছিলে...

মেগাসিটি

সুজন হাজারী ভোরের সূর্যের দুয়ার খুললে মেগাসিটির ট্রাফিক মোড়ে সিগন্যাল স্ট্যান্ডে সংকেতবাতি জ্বলে ওভারব্রিজের আন্ডারগ্রাউন্ড সিঁড়ির নিচে ব্যথাতুর চাতুর্যে...

আনন্দ উড়ান

মৃণাল বসুচৌধুরী তোমার প্রশ্রয়ে যখন অলস মেঘ আকাশরেখার পাশে জমে থাকা স্বপ্নকণা ছুঁয়ে নেমে আসে আমাদের আয়ুহীন চোখে যখন...

চোখে অনাদি জল

শিহাব সরকার বিজন পাহাড়ে হেমন্তের হিমকুয়াশা বনপথে একা হাঁটি, দূরে আলোঝলমল সার্কাসে ধুন্ধুমার বাদ্যব্যান্ড অরণ্যমন্দিরে নিভু-নিভু লণ্ঠন, সমস্বর স্তবগান।...

রেলব্রিজে একা

হারিসুল হক আস্তে আস্তে কমে আসছে চোখের জোর। বাঁ-চোখে অত আর ভালো দেখতে পাই না ক্রমে ক্রমে ডানটাও যাবে...

লসঅ্যাঞ্জেলেসের পথে

কাইয়ুম চৌধুরী কুয়াশা কেটে যাওয়া রোদ মাখা শস্যক্ষেত যতদূর চোখ যায় দ্রুত অতিক্রম করে যাই জলপাই বাগান হেমন্ত হাওয়ায়।...

না, শোকগাথা নয় (সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়কে উৎসর্গিত)

অলোকরঞ্জন দাশগুপ্ত কখনোই তুমি চাওনি তোমার মৃত্যুসংবাদ চৌদিকে চাউর হয়ে যাক, সেজন্যেই বুঝি তোমার চলে-যাওয়ার সময়টায় পর-পর চারদিন জুড়ে...

কূজন

পিয়াস মজিদ মেঘ ও রৌদ্রের গ্রন্থিমূলে বয়ে যায় কত কবরদ্যোতনা। সে হাওয়ার কূলেই তো যাবতীয় কৃষ্ণ জাগরী, স্বপ্নের দ্গি¦লয়।...

বোট স্টেশন ফায়ার স্টেশন

জলধি হালদার এই জলপ্রান্তরের গোধূলিসন্ধিতে দুরকম ঘণ্টি বাজে একটি লাগাতার, একটি সেভেন শর্ট ওয়ান লং। ঘণ্টি বেজে উঠলেই জাহাজের...