মৎস্যকুমারী

জরিনা আখতার হয়তো তার ডোরাকাটা শাড়ির পাড়ে চোরকাঁটা লেগে আছে কুয়াশায় ভিজে আছে আঁচল এলোচুল পিঠে ছড়ানো অথবা হাত-খোঁপা কপালে টিপ, চোখে কাজলরেখা হিজল গাছে ফুটে থাকা গুচ্ছ গুচ্ছ ফুলের […]

Read more
শিরোনামহীন

জরিনা আখতার আকাশের খ- খ- কালো মেঘ থোকা থোকা কালো আঙুরের মতো ঝুলে আছে পৃথিবীর দিকে মুগ্ধ দৃষ্টিতে তাকিয়ে – কোথাও অন্ধকার নেই ঝড়ো হাওয়ায় অশান্ত হয়ে উঠছে না গাছেদের […]

Read more
গল্পের শেষ থেকে শুরু

জরিনা আখতার অকস্মাৎ সমূলে উৎপাটিত হলো গাছটি নানারকম শব্দ করতে করতে অনেকটা খেলার মাঠে বালকদের হইচই করার মতো, তারপর উত্থাপিত হলো নানা প্রশ্ন – গাছটি এইভাবে উপড়ে পড়লো কেন কেউ […]

Read more
জ্যোৎস্না ও জোনাকির গল্প

জরিনা আখতার তবে এখানেই থাকো তোমরা – এই নিশিপুর গ্রাম তোমাদের অভয়াশ্রম, এখানে এভাবে না এলে তো তোমাদের সঙ্গে দেখাই হতো না! জোড়াদিঘির প্রান্ত ছুঁয়ে বনে-বাদাড়েই খেলা করো তোমরা অবাধ […]

Read more
একসাথে পথে যেতে যেতে

জরিনা আখতার ঝুলো বারান্দায় শীত-রোদের খেলা পাশাপাশি দুটো বেতের চেয়ার, টবে ক্যাকটাস এই যে দুজন তরম্নণ-তরম্নণী বসে আছে পরস্পরের জন্য কম্পিত হৃদয়ে – আজ থেকে দশ বিশ তিরিশ চলিস্নশ অথবা […]

Read more
শাস্তি

জরিনা আখতার   ওই দুঃখী নক্ষত্রটি আজ রাতেও আমাকে ঘুমোতে দেবে না – আমার দুচোখ বরাবর ঝুলে আছে রাতের আকাশে কী করে ঘুমোই; আমার বুকে যে ব্যথার মৃদঙ্গ বাজছে তাতে […]

Read more
ফাটল

জরিনা আখতার   অকস্মাৎ দেয়ালের ফাটলটি প্রথম দেখে আমি অাঁতকে উঠেছিলাম – কেননা, নিয়ম অনুযায়ী ফাটলটি আরো বৃদ্ধি পাবে, একসময় খসে পড়তে থাকবে দু-একটি করে ইট, তারপর দেয়ালের বৃহৎ অংশ […]

Read more
অধরা

জরিনা আখতার   জীবনের সঙ্গে জড়িয়ে আছ বললে ভুল হবে – আজীবন তুমি আমার স্বপ্নে বসবাস করছ বন্ধুত্বের দাবি নিয়ে, সেই দূর শৈশবে জেগে উঠেছিলাম তোমাকে পাবার সাধনায় – আলপথে […]

Read more