বেঁচে থাক ১৯৭১

সুরজিৎ দাশগুপ্ত

আমি তখন জলপাইগুড়ি কলেজে ইন্টারমিডিয়েটের পরীক্ষার ফাইনাল দেওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিয়ে ব্যস্ত। সেটা ১৯৫২ সাল। সেবার এপ্রিল মাসে গরমের...

স্মৃতির দর্পণে

সুরজিৎ দাশগুপ্ত

১৯৩৭ সালে আমার মা অশ্রুবালা দাশগুপ্তকে জলপাইগুড়ি হাসপাতালে লেডি ডাক্তার হিসেবে চাকরি দেওয়া হয়। কোয়ার্টারও দেওয়া হয় হাসপাতাল-লাগোয়া। হাসপাতাল...

এক পরিক্রমা কথা

সুরজিৎ দাশগুপ্ত

১৯৫০-এর জুন মাসে দার্জিলিংয়ে ‘বনলতা সেনে’র সঙ্গে আমার হঠাৎ দেখা। তাঁকে জিজ্ঞেস করি, ‘এতদিন কোথায় ছিলেন?’ এটুকু পড়ে পাঠক...

দৃশ্যাবলি : অন্নদাশঙ্কর

সুরজিৎ দাশগুপ্ত

জলপাইগুড়ি জেলা স্কুলে অষ্টম শ্রেণিতে ১৯৪৮ সালে পড়ার সময় ক্লাসে একটি ছেলে আসে, আমার সহপাঠী হয়, সেন্ট্রাল ব্যাংকের ম্যানেজারের...

কালের বিচার

সুরজিৎ দাশগুপ্ত কয়েক বছর হায়দ্রাবাদে কাটিয়ে সুরজিৎ ফিরল কলকাতায় নিজের বাড়িতে, বিষণ্ণ, ভগ্নস্বাস্থ্য। এই সেই বাড়ি যেখান থেকে প্রিয়তমা...

আবার সঞ্চয়িতা পড়তে পড়তে

সুরজিৎ দাশগুপ্ত

এক তরুণ কবি ১২৮৯ বঙ্গাব্দের ভোরের সূর্যোদয় দেখতে দেখতে অনুভব করলেন তাঁর চারদিকে যেন কঠিন কারাগার, লিখলেন, ‘ওরে, চারি...

অশোক মিত্র স্মরণে

সুরজিৎ দাশগুপ্ত

প্রবাসে ঘনায় শোক চলে গেছে আপনার লোক। পড়ে আছে স্বপ্নগুলো কিছু তাজা কিছু বা হয়েছে ধুলো। তাজাগুলো ফুটবে কি...

ধন্য জীবন

সুরজিৎ দাশগুপ্ত   ভালোবাসা এক বিশেষ বিদ্যা হয় শুধু দুজনের দেহের কামনা নয় সাধন করার বিষয় সুনিশ্চয় গুরুর কাছেই...

ঈশ্বরী স্মরণে

সুরজিৎ দাশগুপ্ত   বাঁচাটাকে যারা গড়ে তুলেছিল মহৎ শিল্পকার্য তারাও যখন চলে যায় সব দেখা-শোনা-ছোঁয়া ছাড়িয়ে সত্যি কি তারা...

সাতাশ জুলাই

সুরজিৎ দাশগুপ্ত সূর্যদেব যখন আকাশ জুড়ে সেই এক জুলাই-দুপুরে মৃত্যু বের হলো তার নিষ্ঠুর শিকারে – কখন ঝাঁপাবে কার...