জানি, তোমরা কেউ আমার কথাগুলো পৌঁছে দেবে না বজ্রবিদ্যুৎভরা মেঘেদের কানে – একটি ফণাতোলা গোখরার কাছে কতটা প্রার্থিত ছিল মধু অথবা ফণিমনসার কাছে চেয়েছিলাম তরতাজা রক্তগোলাপ – সবই অনুক্ত থেকে যাবে – আমি তাই আমার কথাগুলো রেখে যাব পাখিদের ঠোঁটে –

নদীটারও কথা ছিল – রোদ্দুর ছড়ানো দিনে উগরে দিয়েছিল তাই কথার বুদবুদ – ধুলোর রাস্তা দিয়ে হেঁটে যেতে যেতে যেভাবে দৃশ্যগুলো তুলে রাখি চোখের ঝুড়িতে – সেইভাবে সযত্নে গেঁথে রাখি এইসব গূঢ় পদাবলি –

মানুষ মূলত বধির, হৃতবাক – নিজেকে অপচয় করে তাদের অনুর্বর হৃদয়ে কেন আমি রুয়ে দিতে যাব এইসব কথা আর শব্দের চারা –

আজ তাই, সুমিষ্ট সংগীত শোনাতে গিয়েও বহুবার থেমে থেমে যাই – তোমাদের কাছে নয়, চলে যাওয়ার আগে আমার সমস্ত কথা পাখিদের ঠোঁটে তুলে রেখে যাব –

Leave a Reply