একটা নদী বয়ে যাচ্ছে রক্ত এবং ঘামে

সুধাগন্ধ পলল মাটি প্রাচীন হাড়ের খামে

জলপ্রপাতের পতনধ্বনি রোমকূপে ঢেউ তোলে

বৃক্ষশাখার সবুজ পাতা অলক জুড়ে দোলে

আমার শরীর খুঁড়ে দেখো মেঘলা আকাশ ত্বকে

পাখির বাসা চন্দ্র তারা সূর্য জ্বলে নখে

বাংলাদেশের বদ্বীপ আঁকা আমার শ্যামল মুখে

জলপরিরা সিনান করে সমুদ্রজলবুকে

দু-হাত ভরা ফুলের বাগান ফসল ফলে পায়ে

ম-ম করা সুবাস মাখি কোমল মধুর বায়ে

আমার হৃদয় ফুঁড়ে দেখো অযুত লোকের বাস

রৌদ্রপোড়া স্বেদজড়ানো করছে বসবাস

আমি দ্রাবিড় রং মেখেছি নানা জাতির লোহুয়

বর্ণ আমার শ্যামল কালো মন ভরেছি কুহুয়।

Leave a Reply