আমি

লেখক:

শাহজাহান হাফিজ

 

এক

বাতাসও বিষণ্ণ আজ এমন সংসার!

আমি শুধু একা হয়ে যেতে যেতে,

জীবন যাপন আর জন্ম-সম্ভাবনা নিয়ে,

সভ্যতার খেলাধুলা দেখি!

আমি ফের নদীতীরে, ছিন্নমূল মানুষের স্বপ্নে যাতনায়,

আঙুল জড়াই মৃত্যু; তারপর ফিরে যাই লোকজ বাসনা থেকে

লক্ষ লক্ষ স্মৃতিময় ঢেউয়ের ওপারে!

 

ছিলো মেঘ পরিচয়হীন, পরাভূত প্রেম থেকে জন্মেছিলো অশ্রুর সাগর।

অসম্ভব অগ্নিশিখা তুমি, তবু তুমি বলোনি বিদায়।

এমনই মর্মভেদী সংসার এখন; এমনই বেদনাময় দীর্ঘ অবকাশ!

আমি শুধু একা বসে, দেখি এই সময়ের, বহুদীর্ণ ডালপালাদের;

দেখি জন্মের উৎসবমগ্ন নারী ও নগরী!

 

দুই

প্রেমহীন পরাজয়হীন, পাথরের কাছে তুমি,

কী চেয়েছো জননী সভ্যতা!

পাপে-পুণ্যে বেদনা-বিভায়, ব্যাকুল বিষণ্ণ স্মৃতি, ঝরবেই শুধু।

কিছু প্রেম, প্রকৃত রহস্যময়, অধরাই থেকে যাবে;

কিছু স্বপ্ন, অনন্ত ও অন্তহীন, জেগে রবে অশ্রু-অন্ধকারে!

খেলা হবে বিতর্কিত সময়ের, স্বল্পদৈর্ঘ্য সুখ-দুঃখ নিয়ে।

খেলা হবে মানুষের জন্ম-মৃত্যু নিয়ে, জীবনের সর্বগ্রাসী বিষণ্ণতা নিয়ে।

 

আমি কোনো জল নই। আমি কোনো সভ্যতার স্মৃতিচিহ্ন নই।

তবু আমি ফিরে আসি ছিন্নমূল উদ্বাস্ত্ত একাকী!

আঙুলে জড়াই স্বপ্ন; তারপর ফিরে যাই –

আদি যন্ত্রণার এই আদিম জগৎ থেকে, আদিগন্ত দুঃখময় স্মৃতির ওপারে।

স্বপ্নও বিপন্ন আজ এমন সংসার!

আমি শুধু একা হয়ে যেতে যেতে,

জীবনযাপন আর স্বপ্নসম্ভাবনা নিয়ে,

সভ্যতার খেলাধুলা দেখি!