দূতকুমার

ধর্মগ্রন্থের মতো দেহ সংরক্ষণ করতে অতীতে

ইচ্ছে হলে নতুন ভাষার শিহরণে মেলে ধরতে মধ্যরাত

আবার রেহালে রেখে দিতে দিনের পর দিন

অতীতে তোমরা ছিলে এমনই অপঠিত গ্রন্থের অক্ষর

দূর থেকে আমরা রেহাল হতে চাইতাম

বজ্রের গতির অলক্ষে রক্ষা করতে

ধীরে ধীরে গড়ে তোলা তোমাদের দ্রাক্ষাবন

আমরাও ঝড়ের আগে যেতাম

বোশেখ মেলায়

প্রতিশ্রুতির লাগাম চড়িয়ে কিনে আনতাম ঘোড়ার বহর

মেঘের ফাটল সরিয়ে চিকন রোদ গায়ে মেখে

নেমে আসতাম যেন অদম্য ঘোড়সওয়ার

ক্লান্তিতে একদিন দেবে সংরক্ষিত দ্রাক্ষারস

ভাবতাম, আমরাই তোমাদের দূতকুমার


Comments

Leave a Reply