একটু দেখার কথামালা

লেখক:

রবীন্দ্র গোপ

কেমন আছ কবিতা? চোখের তলায় বিষাদ নদী?

আছি কেমন, জান সবি-তা। কাঁদুক নদী কাঁদুক

তবু বলি, চলার পথে ভাঙছো যে পার

আষাঢ় নদী বাঁধ মানে না, হার মানে না, তাইতো ভাঙে পাড়।

 

বুকে তোমার জোয়ার-ভাটা কখন আসে যায়?

চোখের দেখা নয় সে শুধু মনের দেখা চায়

মন কাঁদে বন কাঁদে কাঁদে প্রিয় নদী

কান্না জলের নদীর জলে ডুবছি নিরবধি।

 

বড় বেশি দুঃখ ফোটাও বসন্তের বাগানে

দুঃখ রঙের গোলাপ দেখ শরীরের বাগানে

হায়রে কবিতা, বাগানটা তো সাজিয়েছো অন্য কারো জন্য

ইচ্ছে হলেই নিজের করেও নিতে পারতে, জীবন হতো ধন্য।

 

ইচ্ছে ছিল বলবো তোমায়, ভাবছি বলবে বন্য

ভাবতে ভাবতেই ঘুরবে চাকা ওপারমুখো জীবন

অতশত বল না তো, হাতটি তোমার দাও

বাড়িয়ে যখন দিয়েছি হাত, জীবনটাই নাও।

 

জীবন জীবন খেলতে আমার ইচ্ছে ভীষণ জাগে

ইচ্ছে থাকলে উপায় হতো, ডাকলে পারতে কাছে

কাছে ডাকলে মুখ ফেরাতে যদি

কী আর হতো জীবনটাই বিষাদ নদী, বইতো নিরবধি!

সোশ্যাল মিডিয়া

নিউসলেটার