কালো গোলাপ ও প্রবালদ্বীপের স্বপ্ন

লেখক:

নাসির আহমেদ

অসংখ্য লাল গোলাপ দেখেছি জীবনে, দেখেছি দু-একটি সাদা গোলাপও
কিন্তু যে গোলাপ কখনো দেখিনি – সেই কালো গোলাপের পাপড়ি
গতরাতে ছুঁয়ে গেছে আমাকে ঘুমের মধ্যে। তারপর থেকে আমি
কালো গোলাপের জন্য তৃষ্ণার্ত জেগে উঠি প্রতিদিন। এক আশ্চর্য হাহাকারে।

যাইনি প্রবাল দ্বীপে কস্মিনকালেও, সূর্যস্নান করিনি কখনো সৈকতের
রুপালি বালিতে ঝলমলে ভোরের আলোয়। অথচ আশ্চর্য এক
প্রবাল দ্বীপের শিশির ছুঁয়ে গেল আমাকে ঘুমের মধ্যে! সূর্যস্নানের
জন্য তৃষ্ণার্ত নই, আমি ওই অপূর্ব সৌন্দর্যময়ী প্রবাল দ্বীপের
কাছে যেতে চাই স্বপ্নের হাত ধরে অন্তত একবার এই ছোট্ট জীবনে।

আমি কবিতা অথবা চিত্রকলার মতো নানাবিধ শিল্প দেখেছি
জীবনে; কিন্তু হঠাৎ স্বপ্নের মধ্যে হাজার হাজার মাইল দূর থেকে
তুমি এলে, যেন দৈত্যের পাহারা থেকে রূপকথার রাজকন্যে
অকস্মাৎ চলে এলে এই বাংলাদেশে আমার নিঃসঙ্গ স্বপ্নের মধ্যে!
তোমাকে প্রথম দেখে এবং তোমাকে হারিয়ে ফেলে আজ মনে হয়
যে-কোনো শিল্পের চেয়ে তুমিই মহত্তম, তুমিই শ্রেষ্ঠ সুন্দর মনোহর
অথচ আমার স্বপ্নগুলো আজন্ম বিবর্ণ ঘাসের মতো জলহীন-পোড়া।

আমি কালো গোলাপের জন্যে, স্বপ্নে যাওয়া প্রবাল দ্বীপের জন্যে
বাস্তবের রূপকথার অধিক এক আশ্চর্য সুন্দরের জন্যে স্বর্গের দুয়ার
খুলে বসে থাকবো আমৃত্যু একা। আমার প্রতীক্ষাই স্বর্গীয় সুন্দর। যেমন
প্রতীক্ষা করে দহনপীড়িত চৈত্র উৎসবে মুখর কোনো বৈশাখের জন্য।