মধ্যরাতে হাওয়াবন্দরে

লেখক:

শিহাব সরকার

 

শূন্যে উড়ে অলীক মধ্যরাত্রি দেখা যায়

তখন মরূদ্যানের হামামে প্রচুর হিমজল গড়ায়

এরকম প্রহর অনেকের আসে

কিংবা আসে না, যেরকম বাগানের ঘাসে

দু’কদম পেরিয়ে শিশিরকণা

দেখার ভাগ্য হয়নি আমার, দেখেছি খুব পাহাড়-পরগনা।

নিষ্ফল ঘোরা শুধু উপত্যকা ও অববাহিকায়

ছড়িয়েছি মোহর রাশি রাশি পাড়া-বেপাড়ায়।

 

নিশিলাগা নরনারী নির্ভুল পড়ে যেতে পারে

সময়ের ত্যানা ছাইভস্ম মৃত ভ্রূণ ফেলে ঝোপে-ঝাড়ে

জাদুনগরীতে উঠে আসার সমূহ গুপ্তলিপি

এরাই খুলেছিল ইরানতুরানে দৈত্যপোরা বোতলের ছিপি,

রাত্রিহাওয়ায় আলিফ লায়লার সৌরভ, ডানাকাটা পরী ওড়ে

মায়াকারাগারে পাতালপুরীর রাসত্মায় মুসাফির ঘোরে

সাতমহলা বাড়ির অলিগলি পেরিয়ে অবশেষে জলের মুখ

হাওয়াবন্দরে ঘুমের অর্চনা, প্রিয় স্বপ্নেরা আসুক।

 

তেষ্টা মিটিয়ে ঘুমাবো আমি, ঘুমিয়ে পড়ি

দেয়ালে দালির পরাবাসত্মব ঘড়ি

বালুঝড় নেই, কোথায় কে যায় মরম্নপথে তালকানা

উড়ছে সারস, ঝলসানো ডানা।