প্রবন্ধ

  • প্রথম বাঙালি নারী-চিকিৎসক কাদম্বিনী গাঙ্গুলী

    প্রথম বাঙালি নারী-চিকিৎসক কাদম্বিনী গাঙ্গুলী

    প্রথম বাঙালি নারী-চিকিৎসক ডা. কাদম্বিনী বসুর (বিয়ের পর কাদম্বিনী গাঙ্গুলী) পৈতৃক নিবাস বরিশালের গৌরনদীর চাঁদশীতে। তাঁর জন্ম ১৮৬১ খ্রিষ্টাব্দে, মৃত্যু ১৯২৩ খ্রিষ্টাব্দে, জীবনকাল ৬২ বছর। পিতার নাম ব্রজকিশোর বসু। তিনি ছিলেনব্রাহ্ম-ধর্মাবলম্বী। কাদম্বিনী বসুর মাতার নাম জানা যায়নি। ডা. কাদম্বিনীর স্বামী দ্বারকানাথ গাঙ্গুলীর জন্মস্থান মাগুরখণ্ড, বিক্রমপুর/ মুন্সীগঞ্জ। তিনিও ব্রাহ্ম-ধর্মাবলম্বী ছিলেন। কাদম্বিনী বসুর জন্মস্থান বরিশালের গৌরনদীর চাঁদশী,…

  • তৃতীয় প্রজন্মের ভাবনা : দেশভাগ ও বাঙালি মুসলমান সমাজ

    তৃতীয় প্রজন্মের ভাবনা : দেশভাগ ও বাঙালি মুসলমান সমাজ

    সাম্প্রদায়িক দাঙ্গায় আক্রান্ত হওয়ার ভয়ে গত শতাব্দীর পঞ্চাশের দশকে আমাদের পরিবার পশ্চিমবঙ্গ থেকে পূর্ববঙ্গে চলে আসে। নদীয়ার বিভিন্ন গ্রামে হিন্দু ও মুসলমান রায়ট বেধে গেলে নদীয়া জেলার বিপুলসংখ্যক মুসলমান ভীত-সন্ত্রস্ত হয়ে পাকিস্তানভুক্ত কুষ্টিয়া, মেহেরপুর, চুয়াডাঙ্গা এলাকায় চলে আসতে শুরু করলে আমাদের পরিবারের সদস্যরাও চলে আসতে বাধ্য হন। আমি রিফিউজি নই, কিন্তু রিফিউজি পরিবারে জন্ম নেওয়ার…

  • কবিপুত্র রথীন্দ্রনাথ : নিভৃতচারী এক প্রতিভা

    কবিপুত্র রথীন্দ্রনাথ : নিভৃতচারী এক প্রতিভা

    রথীন্দ্রনাথ ঠাকুর রবীন্দ্রনাথের সন্তান, যাঁর কথা আলোচনা হলে সবাই বলেন, ‘সেই নেপথ্যচারী মানুষটি’। তাঁর জীবনের দুটি দিক – একটি ঝকঝকে, অন্যটি ধূসর। ঝকঝকে অংশে তিনি একাধারে সাহিত্যিক, সংগীতবোদ্ধা, প্রশাসক, শিক্ষক, কারু এবং দারু শিল্পী। অন্যদিকে ধূসর অংশে তিনি স্বেচ্ছানির্বাসিত, একা, বন্ধুহীন – তাঁর পরিবার থেকে দূরে থাকা এক দুঃখী মানুষ। রথীন্দ্রনাথ একটি সুবিধা নিয়ে জন্মেছিলেন…

  • বাংলা ভাষা ও সাহিত্য : ধ্রুপদী মানের উপাদান প্রসঙ্গে

    বাংলা ভাষা ও সাহিত্য : ধ্রুপদী মানের উপাদান প্রসঙ্গে

    কথা শুরুর আগে বাংলা ভাষা-সাহিত্যের বয়স হয়েছে প্রায় এগারোশো বছর। হরপ্রসাদ শাস্ত্রীর প্রকাশিত চর্যাপদের সময়টা হিসাবে নিলে বয়সটা সেরাম হওয়ার কথা। কিন্তু এই ভাষা-সাহিত্যের বয়স কি সত্যিই তাই? সম্ভবত নয়। সাধারণ একটা ধারণা যদি মেনে নিই যে, যে-কোনো ভাষার সমৃদ্ধ একটা সাহিত্য তখনই তৈরি হতে পারে, যখন ভাষাটি যথেষ্ট উন্নত ও সাহিত্যের ভাব-প্রকাশের উপযোগী হয়ে…

  • হুমায়ূন আহমেদের ফেরা : ভাটির মানুষের জীবনকাব্য

    হুমায়ূন আহমেদের ফেরা : ভাটির মানুষের জীবনকাব্য

    ফে  রা উপন্যাসের ভূমিকায় নন্দিত কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদ বলেছেন, ‘‘ফেরা’র গল্প ভাটি অঞ্চল নিয়ে’ (হুমায়ূন আহমেদ, ফেরা, উপন্যাস সমগ্র, দ্বিতীয় খণ্ড, ঢাকা, প্রতীক প্রকাশনা, ২০১৮, ভূমিকা)। হুমায়ূন আহমেদের ভাটি অঞ্চল নিয়ে মুগ্ধতা ছিল। তিনি ভাটির দেশের লোক; হাওরের মায়াময় সৌন্দর্য, হাওরবাসীর উদাসী ও সংগ্রামী জীবনালেখ্য তাঁর ফেরা উপন্যাসের মুখ্য বিষয়। বাংলাপিডিয়ায় ভাটি অঞ্চলের টীকায় বলা…

  • লালসালু : আধুনিকতা ও শিল্পের স্পর্ধা

    লালসালু : আধুনিকতা ও শিল্পের স্পর্ধা

    বাংলা কথাসাহিত্যে সৈয়দ ওয়ালীউল্লাহ এক অবিস্মরণীয় নাম। র‌্যাডক্লিফ-অঙ্কিত পূর্ববাংলার সাহিত্যিক মানচিত্রে তাঁর ভূমিকা যুগপ্রবর্তকের। বিংশ শতাব্দীর প্রথমার্ধে এই ভূখণ্ডের বৃহত্তর জনগোষ্ঠী, আধা-সামন্ত বাঁধনে আবদ্ধ গ্রামীণ মুসলমান সমাজের জীবনযাত্রা উপস্থাপনে গুরুত্বপূর্ণ উপন্যাস লিখেছেন আবুল ফজল, আবু জাফর শামসুদ্দীন, শওকত ওসমান, শহীদুল্লা কায়সার, আবু ইসহাকের মতো কৃতী ঔপন্যাসিকগণ। এরপরও কোথায় যেন শূন্যতা ছিল – আধুনিক কথাসাহিত্যের প্রকরণে…

  • অদ্বৈত মল্লবর্মণের সংগীতমানস

    অদ্বৈত মল্লবর্মণের সংগীতমানস

    একটিমাত্র সাহিত্যকর্মের জন্য নিজ ভাষার সাহিত্যে এমনকি বিশ্বসাহিত্যে অমর হয়ে আছেন, পৃথিবীর বিভিন্ন ভাষার সাহিত্যের ইতিহাসে এমন বিরলপ্রজদের একজন, বাংলাসাহিত্যের অকালপ্রয়াত কথাসাহিত্যিক অদ্বৈত মল্লবর্মণ (১৯১৪-৫১)। আধুনিক বাংলা সাহিত্যে উচ্চবর্গের এবং উচ্চবর্ণের একচ্ছত্র আধিপত্যের মধ্যে, বলতে গেলে, প্রায় একমাত্র নিম্নবর্গের লেখক অদ্বৈত মল্লবর্মণ তিতাস একটি নদীর নাম উপন্যাসের মাধ্যমে কালোত্তীর্ণ অক্ষয় একটি আসন পেতে বসে আছেন।…

  • আখতারুজ্জামান ইলিয়াসের ছোটগল্পে চেতনাপ্রবাহরীতি

    আখতারুজ্জামান ইলিয়াসের ছোটগল্পে চেতনাপ্রবাহরীতি

    তত্ত্বগত দিক থেকে দেখলে বলা যায়, আখতারুজ্জামান ইলিয়াসের ছোটগল্পের বুনটে নানা রীতি-পদ্ধতির এক অপূর্ব সংশ্লেষ ঘটেছে। গল্পের গঠনশৈলীতে কেবল নয়, এটা ঘটেছে বিষয়-ভাবনার নানা স্রোতের সম্মিলনীতেও। তাঁর উপন্যাসও এই বক্তব্যের ব্যতিক্রম নয়। ইলিয়াস প্রবলভাবে সমাজ-সচেতন লেখক। এমন কিছু গল্প তাঁর আছে যেখানে ব্যক্তিচৈতন্যের অন্তর্গূঢ় ভাবনা প্রাধান্য পেয়েছে, সমাজ তথা রাষ্ট্রের যেখানে প্রত্যক্ষতা নেই, সেখানেও ইলিয়াস…

  • জল-বন্দনা

    জল-বন্দনা

    এসো এসো হে তৃষ্ণার জল, কলকল্ ছলছল্… ভেদ করো কঠিনের ক্রূর বক্ষতল কলকল্ ছলছল্ ॥                                      – রবীন্দ্রনাথ রবীন্দ্রনাথের এই গানের বাণীর ভাবার্থ – কঠিনের ক্রূর বক্ষতল ভেদ করার চেষ্টা-না করে বরং জল নিয়ে জলো কথা দিয়েই শুরু করা যাক। আমরা সবাই জানি, পৃথিবীর তিন ভাগ জল, এক ভাগ স্থল। বিজ্ঞান বলে, দুটি হাইড্রোজেন…

  • বঙ্গবন্ধু : স্বপ্নচারী ও সম্মোহনী নেতা

    বঙ্গবন্ধু : স্বপ্নচারী ও সম্মোহনী নেতা

    বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বের অনন্য বৈশিষ্ট্য বুঝতে হলে প্রথমে তাত্ত্বিক দৃষ্টিকোণ থেকে নেতৃত্বের ধারণাগত  বিশ্লেষণ (conceptual analysis) প্রয়োজন। এ পরিপ্রেক্ষিতে, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নচারী এবং সম্মোহনী নেতৃত্ব বিষয়ক আলোচনার অবতারণা এবং এ আলোচনায় দুটো পর্ব থাকবে। প্রথমত, তত্ত্ব এবং পরবর্তী পর্যায়ে ইতিহাসকে ফিরে দেখার মাধ্যমে তাঁর নেতৃত্বের গুণাবলির বিশ্লেষণ। বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্ব নিয়ে কথা বলতে গেলে প্রথমত…

  • বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব : একুশ শতকের ভাবনা

    বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব : একুশ শতকের ভাবনা

    ১৯৭১ সালে ফরাসি দার্শনিক অঁদ্রে মালরো বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণের অভিপ্রায় প্রকাশ করেছিলেন। তিনি  পাকিস্তানি বাহিনীর বিরুদ্ধে একটি ট্যাঙ্কবহর পরিচালনা করতে চেয়েছিলেন। ১৯৭১ সালের সেপ্টেম্বরে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সমর্থনে ভারতের সর্বোদয় আন্দোলনের নেতা জয়প্রকাশ নারায়ণ একটি আন্তর্জাতিক সম্মেলনের আয়োজন করেন – এতে মালরোকে আমন্ত্রণ জানানো হয়। মালরো যোগদান করেননি। তবে প্রত্যুত্তরে একটি ঐতিহাসিক চিঠি লেখেন – তাতে …

  • বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় পরিচয়ের সৃষ্টি

    বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় পরিচয়ের সৃষ্টি

    অনুবাদ : আশফাক স্বপন ছয় দফা কার্যক্রম বাংলাদেশের জাতীয়তার অভ্যুদয় একটি দীর্ঘ রাজনৈতিক সংগ্রামের মধ্য দিয়ে ঘটে। হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী, শেরে বাংলা এ কে ফজলুল হক এবং মওলানা ভাসানীর মতো ঐতিহাসিক রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব এই সংগ্রামে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন। তবে বাঙালিদের মধ্যে জাতীয় চেতনাসৃষ্টির প্রক্রিয়া এগিয়ে নেওয়ার জন্য যে রাজনৈতিক উদ্যমের প্রয়োজন ছিল, সেটি বঙ্গবন্ধুর…