সোহরাব পাশা

  • সন্ধ্যার কুসুম নদী

    রাত্রির দুপুরে হাঁটে গল্প ছেঁড়া রোদ দূরে ডাকে কেউ, মন পোড়ে ঝরে পড়া বসন্তের শব্দ অস্তমিত লাল আঙুর গাছের ছায়া বৃষ্টির হরিৎদাহ চোখে ফোটে গোলাপের কাঁটা; ঘুম জানালায় হেসে ওঠে স্বপ্নদীর্ণ জলরং ঠোঁট লাবণ্যের আগুন সিম্ফনি সন্ধ্যার কুসুম নদী অথৈ নৈঃশব্দ্যের গান স্নিগ্ধ শিল্পস্বর উজ্জ্বল ঐশ্বর্যের তুমি ডাউন ট্রেনে ফেরে – না ফেরা উন্মাদ রাত্রি-নিবিড়…

  • ভাষা : রৌদ্রদিনের সংস্কৃতি 

    ভাষা মানে সভ্যতার সংবিধান  ভাষা মানে রাষ্ট্রচিন্তা  ভাষা মানে মুক্তির সনদ ভাষা মানে রৌদ্রদিনের সংস্কৃতি  ভাষা মানে প্রফুল্ল দুপুর  ভাষা মানে হলুদ বিকেল  স্নিগ্ধ রোদের কোলাহল  ভাষা মানে সন্ধের তুলসীতলা – ভোরের আজান ভাষা মানে ভালোবাসার নিবিড় আলোপড়া –                   গভীর গোপন তীব্র মুখর মুগ্ধতা  ভাষা মানে লাবণ্য-কবিতা …

  • জ্যোৎস্নার গান

    জ্যোৎস্নার গান ভুলে যাওয়া অন্ধ মানুষ – স্বপ্ন ওড়ে – নিদ্রিত দুপুরে, নিঃস্বতার তামাশার রঙিন ফানুস ছিঁড়ে যায় উজ্জ্বল তিমিরে; রাত্রি জেগে থাকে কুয়াশার ঘোরলাগা দূর একাত্তরে, বিদীর্ণ পাঁজরে – মৃত্যু আর – বিষণ্ন রুগ্ণ ছায়ার ভিড়ে; জন্মান্ধ রাত্রির সিঁড়ির নিচে নিবিড় নির্জনে ভুল ওড়ে – মন পোড়ে – পৃথিবীর প্রিয় ফুলগুলি যায় ঝরে ময়লাদিনের…

  • কবি মাহমুদ আল জামান : স্বপ্নের বাতিঘর

    (১ নভেম্বর কবি মাহমুদ আল জামানের প্রয়াণ দিবসে) তোমার নাম প্রত্যহ নির্মম বিষাদে গান করে দীর্ঘশ্বাসগুলি নদীর প্রতিভা পায় ঢেউ ওড়ে, বালি ওড়ে – শূন্যতার ভিড়ে না-ফেরা প্রিয় পাখির আগুন-ছায়ায় জীবন কী ফুরিয়ে যায় নির্জনতার তুমুল আঁধারে মনপোড়া ওই কবর-চিতায় মাঝে মাঝে মাঝরাত গল্প করে নিঃস্ব বেদনার; জানালায় ‘মা’ – আকাশ দেখে, ‘দিঠি’র চোখ ভিজে…

  • ভোরের বিজ্ঞাপন

    মুছে যায় পথের অক্ষর যা ছিল ভোরের বিজ্ঞাপনে          বকুলগাছের নিচে ছায়ার ভ্রমণ ছিল দুপুরে চন্দ্রগ্রস্ত রাত্রিও ছিল ভিড় এড়িয়ে মুখোমুখি চোখের ভেতর-মাধুকরী                       ফুলের পাথর বৃষ্টির নিচে আগুন ছিল পুড়েছে রাতের দীর্ঘশ্বাসে মেঘের গোপন ডানা – ভোর-সন্ধ্যাবেলা শুধু পুড়ছে না তার হাসির ঘ্রাণ              প্রফুল্ল ছায়ার শব্দ

  • কোথাও কুহক যাত্রা : শঙ্খ ঘোষ

    ‘আজ বসন্তের শূন্য হাত’ উন্মাদ সমুদ্র সেই চোখে              দিকচিহ্নহীন ছোট ছোট স্বপ্নের ভিড় অস্থির বুকে ভোর-ফোটা আলো অমলিন, সমুদ্র লোনা হাওয়ার গল্প       মুখর ঢেউয়ের বিরহ পিপাসার্ত অনিঃশেষ মৃত্যু-গান            – কিছু দৃশ্য দুরূহ সন্দিগ্ধ রৌদ্রের লাল  মেঘ ভীরুপ্রাণ কুহক নিহিত মুগ্ধ বসন্ত দুপুর       নির্জন রোদন অগ্নিফুলে দূর বাজে গ্রহণের প্রণয় নূপুর –…

  • ভাষা : বুকের বসন্তখোলা পাখি

    প্রথম ভোরের রোদে জ্যোতির্ময়-ভাষা পৃথিবীর প্রথম আলোর পাঠ বুকের বসন্তখোলা পাখি জানালায় যুবতী চোখের স্নিগ্ধ দ্যুতি স্বপ্নভূমি তোমার আলোয় অমানিশার যন্ত্রণা ঢেকে রাখি ভুলে থাকি যত দীর্ঘ হোক পথপ্রান্ত মাঠ-ঘাট তুমি আমার অনন্ত নদীভাষা সুবর্ণ ঠিকানা তুমি আমার গোপন ছায়া তুমি আমার ভালোবাসার স্বপ্ন অশেষ কবিতা তুমি রাত্রিখোলা নির্জন অক্ষরলেখা মুগ্ধ খাতা জোছনা ফোটার বিরল…

  • আবুল হাসনাত বাড়ি নেই

    No day is safe from news of you                         – Sylvia plath. ‘ইস্টিমার সিটি দিয়ে যায়’ – পৃথিবীর এত আলোর নিচে হারানো পথের দীর্ঘ বিস্তার চোখে প্রত্ন মেঘের কুহক আপনি কোন হারানো সিঁড়ির চাবির খোঁজে ব্যস্ত – মুখর শূন্যতার ছায়াশব্দের ভিড়ে, আপনার সেই আগানবাব দেউড়ি নিরুত্তর প্রিয় ৯২ যুগীনগর বলেছে, ‘হাসনাত বাড়ি নেই’ শুধু ধু…

  • আগুননদী

    সোহরাব পাশা শূন্যতার কোনো শুদ্ধ অনুবাদ নেই যখন মেঘলা সন্ধে নামে ছায়া পড়ে পাতার ওপর লাল ফুলের ওপর তোমার মুখ আরো রঙিন হয়ে ওঠে – অনেক বসন্তের নিবিড় আলোপড়া সেই মুখ তোমার বাড়ি যাওয়ার কোনো পথ নেই সব পথ সব মানুষের ব্যবহারযোগ্য নয় কোথাও কোনো স্টেশন নেই নেমে যাওয়ার তোমার অপেক্ষমাণ জানালার মুখে। গোপন স্মৃতির…

  • আমাদের বাড়ি

    সোহরাব পাশা গভীর মেঘের সূক্ষ্ম ভাষা ছিল রাত্রির বৈশাখে নদীর মাতাল ঢেউ ভাঙে জলের কবিতা হাসির শেকড়, আমি অন্য কেউ ভেবে এক ফোঁটা অন্ধকার ঢেলে ছিলে চোখে কখনো ভাবোনি প্রজাপতি ভোর দেখেনি শৈশব আমাদের দেখেনি বিকেল আলোকলতায় ঝিরঝির বৃষ্টির চুম্বন, রাত পোহানোর নামতা পড়েই আরেক সন্ধের পাতা ছুঁয়েছে আঙুল; দূরের প্রান্তরে ঘুরে ঘুরে ছুঁয়ে গেছে…

  • অন্য এক ভোরে ফুল ফোটে

    অবেলায় কিছু ছেঁড়া গান ভেসে আসে ফেরে না স্বপ্নময় সময় বিনিদ্র রাত্রি বসিয়ে রাখে জানালায় অন্ধকারে তোমার বিষাদ ওড়ে, হাসি ঝরে পড়ে; দীর্ঘকাল আগে কোনো কবি কী এমন বিহবল বেদনায় শুনেছিল বাতাসের ধ্রম্নপদী সংগীত নৈঃশব্দ্যের হাসি শূন্যতার দীর্ঘ ভিড়ে, তারে ফিরে দেখার উপায় নেই তো একটিবার সময় যখন কুয়াশার; বাসনার মৃত্যুর আগেই সকলেই ফিরে যায়,…

  • বসন্তের পাতা খোলে

    সোহরাব পাশা   ধুলো কখনো ময়লা হয় না   ভুল থাকে বলেই তো শুদ্ধস্বর ভূগোল রচনা নদী-পাঠে ধূলি নেই বুকভরা জলের অক্ষর ঢেউ তোলে বুকের ভেতর,   তোমার লাবণ্যছায়া কামিজের নীল ফুল ভেসে গেছে দূরে জলের আঙুলে তুমি নুয়ে পড়ো আজ সহজেই ভাঁজ করা কাগজের ফুলে হেসে ওঠো   হঠাৎ একটি লাল ঘোড়া তেড়ে এলে…