হৃদয়-দুয়ারে ধরো গান

বাড়ালেই ধরে ফেলবে এই মগ্নতায় ঝোলের আলু কেটেছে, চাটনির আমও, অথচ তেল-মশলার টানাটানি কলুর কলও বন্ধ চিন্তামণি নিদ্রাতুর এই মনে জাগে! ধরে ফেলবে এই শুভ বাসনায় রাত্রির গেরো কাটাতে গোপালকে […]

Read more
ইঞ্জিন

কমলাপুর রেলস্টেশনে গিয়ে দেখি      ট্রেনের বগিগুলো দাঁড়িয়ে রয়েছে,              ইঞ্জিনের কোনো দেখা নেই! কখন আসবে সশব্দে ইঞ্জিন? হুইসেল বাজিয়ে বাজিয়ে –    বগিগুলোর সাথে মৈত্রীবন্ধন দৃঢ় হবে, বগিগুলো অসহায় […]

Read more
মাছ ধরেছি

অথই জলে মাছ ধরেছি চিকন জালে আউল বাউল মাছ ধরেছি এই দ্যাখো না – মলা, ঢেলা, কানকাটা কই রূপচাঁদা আর রঙিন রোহিত দেখতে কি পাও আঁশের ঝিলিক? দিল-দরিয়ায়, রূপ-দরিয়ায় আমি […]

Read more
প্রবল নৈঃশব্দ্যের মধ্যে

প্রবল নৈঃশব্দ্যের মধ্যে  খুঁটে খুঁটে কিছু পোকা দেখা যায়।  দেখা যায় মত্ত হাওয়ার ভেতর  গুঁড়ো গুঁড়ো ধূলিকণা উড়ছে।  ঝরা পাতার সামান্য শব্দ  বিস্ফোরণ হয়ে ওঠে।  দৃষ্টি এড়িয়ে যাওয়ার নিমেষগুলো কাছাকাছি […]

Read more
নোটেশন

তোমার নোটেশনগুলো বড় বিপজ্জনক শব্দে-সুরে, রঙে-রসে তার যত স্তুতিই হোক সে কেবল এক সুন্দরের প্রপঞ্চ – ধ্বংসযজ্ঞে আত্মাহুতির প্রণোদনা; তোমার ভ্রুকুটির বিদ্যুচ্চমকে যতবার আমার জগৎ আনন্দে উদ্ভাসিত ততবার আমার মাথায় […]

Read more
বাড়ি

সঞ্চয় যা কিছু ছিল সব দিয়ে বানালাম বাড়ি একটা! ফুটপাতে শুয়ে থাকা গৃহহীনেরা প্রতিদিন স্বপ্ন দেখে একটা বাড়ির রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে থাকা বাড়িগুলোর দিকে বিমুগ্ধ তাকিয়ে থাকে ছিন্নমূল শিশুরা। বাড়ি […]

Read more
বিদায় বলি হে সুবর্ণ সময়

যতই গুছিয়ে আনি গুছানো তো হয় না কিছুই! কার ইঙ্গিতে সব এলোমেলো হয় দ্রুতলয়ে? ছড়ানো-ছিটানো সব আসবাবে ধুলো জমে একাকার হয় সবাই তাকিয়ে দেখে, হাসে আনন্দে বিভোর হয় দেখি এ […]

Read more
একলা পথে

চলেই তো গেছে এমন অনেক দিন দীর্ঘ কোনো চন্দ্রিমা রাতের অপেক্ষায় আকুলি-বিকুলি নৈসর্গিক আঙিনায় বিভোর ঘুমকাতুরে আমি দেখা হয়নি সে কোমল সৌন্দর্যের আলো। চলেই তো গেছে এমন অনেক দিন অযুত […]

Read more
জীবনপরিধি

সামাজিক হৃদপিণ্ডের আয়োজনে বাড়িয়ে দেয় অভাব। অথচ আমরা প্রাণান্ত সমীকরণ খুঁজে চলি বারবার স্বপ্নভুক পাখির ডানায়। ভেঙে ফেলি সংখ্যার গুণনীয়ক। স্বপ্নের আয়োজন এসে ভর করে আঁধারের পরিমাপ দেখে। আর এভাবেই […]

Read more
অলিখিত নির্দেশ

দিন এনে দিন খায় যারা – উঁচুদের উঁচুনিচু দেখার পরেও তারা  থাকবে বোবা, বধির-জন্মান্ধ।  সোনামুখী বীচির সমান উষ্মা প্রকাশও সম্পূর্ণ বারণ।   চোখে-মুখে জ্বালা ধরা কিংবা দৈনন্দিন চাপে মেরুদণ্ড ‘দ’ রূপ হলেও […]

Read more